ভাইরাল

অফিস পাড়ার ব্যস্ততার ভিড়ে এ যেন এক আলাদিনের প্রদীপ! মাছ-মাংস-ডিম সবকিছু নিয়ে হাজির ‘স্মার্ট দিদি’ নন্দিনী, তর্ক বিতর্ক উপেক্ষা করে কলকাতার ব্যস্ত রাস্তায় স্বনির্ভরতার গল্প শোনালেন তিনি

অফিস টাইম ,ব্যস্ত কলকাতা… এই চিত্রটা অনেকের কাছেই ভীষণ পরিচিত। আর কলকাতার অফিস পাড়ার ব্যস্ত রাস্তা মানেই সেখানে ছোট ছোট বিভিন্ন খাবারের দোকান। ভাত, ডাল, তড়িতরকারি থেকে শুরু করে আপনার পছন্দের ঝাল চাওমিন, মুড়ি মাখা ,চপ, রোল সবকিছুর ঠেক। দোকানের পাশাপাশি ছোট বড় রেস্টুরেন্টও সেখানে দাঁড়িয়ে থাকে।

কিন্তু রোজের খাওনের জন্য ওই ছোটো দোকান গুলোর উপরই ভরসা করে থাকেন অসংখ্য মানুষ। আর সেখানকার সুস্বাদু রান্নার পাশাপাশি তাক লাগানো সুন্দরী রাধুনী যদি থাকে তাহলে তো ছেড়েই দিন। মৌমাছির মত ভিড় জমাবে সব মৌচাকে।

ভাইরাল হয়েছে তেমনি এক সুন্দরী রাধুনী নন্দিনী(Smart didi Nandini)। ইউটিউব, ফেসবুকের দৌলতে তার সঙ্গে পরিচয় আপাতত গোটা পশ্চিমবঙ্গবাসীর। নন্দিনীর বিভিন্ন রকমের কার্যকলাপ বিভিন্ন ইউটিউবার তুলে ধরেছে তাদের সোশ্যাল সাইটে। যিনি তার হাতের রান্না খাইয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছেন। ছিনছাম সাজগোজ টিশার্ট জিন্স পরা এই অসাধারণ সুন্দরী মহিলার রান্না খেয়ে কুপোকাত সকলে।

কি নেই সেই তালিকায়! নিরামিষ থালি থেকে ডিম থালি, চিকেন, মাটন সবকিছু সাজিয়ে বসে রয়েছে কলকাতার অফিস টাইমে। চাইলেই আপনার মুখের সামনে খাবার সঙ্গে সঙ্গে হাজির করবে স্মার্ট দিদি নন্দিনী। তিনি দেখিয়ে দিলেন মেয়েরা চাইলে সত্যিই সবকিছু করতে পারে। হোটেল ম্যানেজমেন্ট এ চাকরি ছেড়ে বাবা-মায়ের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে রাস্তার হোটেলে আজ তিনি পাত পেরে খাওয়াচ্ছেন অজস্র অফিস যাত্রী, স্কুল পড়ুয়া, পথ চলতি সাধারণ মানুষ থেকে সবাইকে। এখন আপাতত অফিস বাড়ার চোখের মনি নন্দিনী। তার আসল নাম মমতা গঙ্গোপাধ্যায়(Mamata Ganguly)।

তবে নিজের নামের থেকে ‘স্মার্ট দিদি নন্দিনী’ হিসেবে বেশি পরিচিত তিনি। কলকাতার তিন নম্বর কয়লাঘাট স্ট্রীট ইস্টার্ন রেলওয়ে অফিসের ঠিক পেছনে এমনই সুস্বাদু থালি সাজিয়ে বসে রয়েছেন তিনি। আর খাবারের দাম অতিব সামান্য। ঠিকানা যখন জেনেই ফেলেছেন তখন একদিন বাড়ি থেকে টিফিন না নিয়ে গিয়ে হাজির হয়ে যান তার দোকানে এবং উপভোগ করুন নন্দিনীদির হাতের সুস্বাদু খাবার।

Back to top button