ভাইরাল

কাঁদলে চোখ দিয়ে বেরিয়ে আসছে পাথর! এমন ঘটনা দেখে অবাক গোটা নেটদুনিয়া

বর্তমান যুগে সোশ্যাল মিডিয়া মানুষের জীবনের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হয়ে উঠেছে। হয়ে উঠেছে অবসরের বন্ধু। এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা এমন অনেক ছবি কিংবা ভিডিও দেখতে পাই যা দেখে রীতিমতো তাজ্জব বনে যেতে হয়। সচরাচর আমরা আমাদের চারপাশে দেখতে পাই না, এমন কিছু ঘটনার কথা জানতে পারি সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরেই। সম্প্রতি তেমনই এক ভিডিও মানুষের সামনে এলো এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই।

নেটমাধ্যমে প্রতিদিন প্রতিনিয়ত হাজার হাজার ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে। তারমধ্যে খুব কম ভিডিওই থাকে যা আমাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারে। সম্প্রতি নেটদুনিয়ায় যে নাবালিকার ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে বাচ্চা মেয়েটির কাজ নেই তার চোখ দিয়ে বেরিয়ে আসছে পাথর। তার এই সমস্যার ব্যাখ্যা দিতে পারছেন না চিকিৎসকেরাও।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের রিপোর্টে প্রকাশিত হয়েছিল এই ঘটনা। এই বাচ্চাটি কাজ নেই তার চোখ দিয়ে জলের সাথে বেরিয়ে আসে পাথর। জানা গেছে, এই নাবালিকার বয়স মাত্র ১৫ বছর। উত্তরপ্রদেশের কনৌজের গাদিয়া বালিদাসপুর এলাকায় নিজের পরিবারকে নিয়ে বসবাস করে এই নাবালিকা। বিগত তিনমাস ধরে এই সমস্যায় ভুগছে বাচ্চা মেয়েটি। তার এই সমস্যায় রীতিমতো ভীত তার পরিবারসহ গ্রামবাসীরা। গ্রামবাসীদের কারোর কারোর ধারণা কোন অশুভ শক্তি ভর করেছে মেয়েটির উপর। আবার কারোর কারোর ধারণা এটি কোন বড় বিপর্যয়ের ইঙ্গিত।

এই ১৫ বছরের নাবালিকার অশোকের কথা শুনে অবাক হয়েছেন চিকিৎসকেরাও। এটি ঠিক কি কারণে ঘটছে সেটি এখনো বুঝতে পারেননি চিকিৎসকেরাও। এই নাবালিকার পরিবার থেকে জানানো হয়েছে, শেষ দু-তিন মাস ধরে এমন ঘটনা ঘটছে। শেষ দু-মাসে ১০-১৫ টি পাথর বেরিয়েছে বাচ্চা মেয়েটির চোখ থেকে।

আগেও একবার এমন একটি ঘটনার কথা শোনা গিয়েছিল। আগে ২০১৪ সালে এমনই এক ঘটনা দেখা গিয়েছিল ইয়েমেন। সাদিয়া সালেহ নামে ১২ বছর বয়সী বালিকাও একই রোগে আক্রান্ত ছিল। তবে চিকিৎসকদের মত, কোন কারণ দেখিয়ে এই সমস্যার ব্যাখ্যা দেওয়া সম্ভব নয়। তবে এখনো চিকিৎসকেরা বুঝতে পারেননি এমনটা ঠিক কি কারনে হচ্ছে! সম্প্রতি এই অদ্ভুত ঘটনার কথা জানতে পেরে রীতিমত অবাক হয়েছেন সকলেই।

Back to top button