ভাইরাল

“ওর স্বামী টম ক্রুজ নয় যে তাঁর ওপর আমার আকর্ষণ থাকবে” – সুদীপার মন্তব্যের উত্তরে কটাক্ষ করলেন শ্রীলেখা

জি বাংলা জনপ্রিয় নন ফিকশন শো রান্নাঘর। দীর্ঘদিন ধরে এই শো এর সঞ্চালনার দায়িত্ব রয়েছে সুদিপার কাঁধে। তবে তাঁর অহংকারী মনোভাবের কথা সঞ্চালিকার কথাবার্তা থেকেই স্পষ্ট হয়ে যায়। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন এমন বক্তব্য তিনি বলে ফেলেন যা দর্শকদের কাছে খুবই খারাপ ভাবে সামনে আসে। সম্প্রতি শুইগির ডেলিভারি বয়দের নিয়ে একটি পোস্ট করায় চরম সমালোচনার শিকার হতে হয় সঞ্চারিকাকে। আর সেই পোস্ট ঘিরে নেটিজেন দের সাথে সুর চড়িয়েছিলেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রও। আর তারপর থেকেই চলছে এই বিতর্ক।

সঞ্চালিকা ফেসবুকে পোস্ট করে লিখেছিলেন, “আমি শুধু জানতে চাই সুইগির একজন ডেলিভারি বয়ও ফোন না করে কেন গন্তব্যে পৌঁছাতে পারে না? ফোন করে কেন বলবে, আমি আসছি আপনি গেটটা খুলুন’ আমি কি দারোয়ান যে গেট খুলব?” এই পোস্ট চরম ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। এমনকি তারপর থেকে বহু সমালোচনাও শুরু হয়। এই পোস্টের স্ক্রিনশট পোস্ট করেছিলেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা। আর সেখান থেকেই শুরু আরো এক সমালোচনার।

নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেল থেকে সঞ্চালিকা সুদীপার করা ফেসবুক পোস্ট এর স্ক্রিনশট পোস্ট করে অভিনেত্রী শ্রীলেখা লেখেন, “উদ্ধত অসভ্য এই মহিলা!” এরপরে টিভি ৯ বাংলার এক সাক্ষাৎকারে এসেছিলেন সুদীপা। সেখানে সঞ্চালিকা বলেন, “আমি তো বিশ্বাসই করতে পারছি না যে উনি আমাকে নিয়ে এমন বলেছেন। ছোট থেকে চিনি, আমার দাদার বন্ধু, আমার ছবিতে কাজ করেছেন। খুব অবাক হলাম যে একজন অভিনেত্রী আমার মত একজন সামান্য সঞ্চালিকাকেও নজরে রাখেন।”

এছাড়াও বলেছিলেন, “আসলে যখন উনি আমার স্বামী অগ্নিদেব ও প্রসেনজিৎ চাত্তাপধ্যায়কে নিয়ে কুমন্তব্য করেন তখন আমি দাদা ও স্বামীর পাশে দাড়াই। তখন থেকেই আমি খারাপ হয়ে গেছি। আমাদের যখনই দেখা হয়েছে তখনই আমার বর আর ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে নিয়ে নানা ধরণের মন্ত্রণা দিতেন। তিনি বলতেন, তোমার বর তো ঋতুকে ছাড়া কোনো নায়িকাকেই দেখতে পারে না। কিন্তু আমি সেসব কথাই পাত্তা দিইনি, তাই এখন আমি খারাপ!”

এছাড়াও সুদীপা বলেন, “আমার স্বামী আমায় কি উপহার দিল তাতে ওর কি? উনি কি নজর রাখেন আমাদের ওপর? নাকি ওঁর আমার স্বামীর প্রতি দুর্বলতা আছে?’ শেষে বলেন, বড় অভিনেত্রী, নিজের কাজের প্রতি ফোকাসড হলেই শিরোনামে থাকবেন এসব বিতর্ক করে ফোকাসে থাকার চেষ্টা করতে হবে না”।

সুদীপার এর মন্তব্যের প্রেক্ষিতে শ্রীলেখা জবাবে জানান, “টম ক্রুজ বা হিউ গ্রান্ট এর প্রতি দুর্বলতা থাকতে পারে। কিন্তু আমার ওর বরের সাথে কাজের সাথে র‍্যাপো ছিল ঠিকই তবে সেটা কোনোদিনই গদগদ পর্যায় পৌঁছয়নি। আমার মনে হয় ভদ্রমহিলার ভাবতে ভালো লাগে যে আমার স্বামীকে কেউ চাইছে বা ভাবছে বা স্বপ্ন দেখছে। এটা তাঁর ভুল ধারণা। তাঁর যদি এটা ভেবে আনন্দ হয় তাহলে আমি আর কি বলবো!”

এছাড়াও শ্রীলেখা আরও জানান, “আমি ওনার কিছু জানি না, ওকে তো অনেক আগে থেকেই চিনতাম তখন তো এটা ছিল না। হটাৎ করে মানুষ অনেক কিছু পেয়ে হয়তো মাথা ঘুরে গেছে, মাথা খারাপ হয়ে গেছে।” বর্তমানে শ্রীলেখার এই বক্তব্য বেশ ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়।

Back to top button