ভাইরাল

নন্দিনীতে মুগ্ধ মদন! এবার নন্দিনীর দোকানে রং লাগাতে এলো ‘কালার ফুল বয়’ মদন! স্মার্ট দিদিকে চমকে দিতে নিজেই চলে গেলেন দোকানে! দিলেন বড়সড়ো অর্ডার

নন্দিনীর(Smart Didi Nandini) ভাতের হোটেলে এবারের এলেন কামারহাটির হেভিওয়েট বিধায়ক মদন মিত্র(Madan Mitra)। সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতের তার কাছেও পৌঁছে গিয়েছে স্মার্ট দিদির খবর। তাই যে পাইস হোটেলকে নিয়ে এত চর্চা চারিদিকে। এবার সেখানেই দর্শন দিলেন তিনি।

সোশ্যাল মিডিয়ার(Social Media) ভাইরাল দিদি নন্দিনীর সঙ্গে দেখা করতে এবার তার দোকানে হাজির হলেন মদন মিত্র। তবে শুধু যে দেখা করলেন এমনটা নয়। দিলেন বড়সড়ো অর্ডার। প্রসঙ্গত জানা গিয়েছে করোনা এবং লকডাউনের সময় থেকে এই ভাতের হোটেল চালাচ্ছেন তিনি। তবে মাস দুয়েক আগে হঠাৎ করে ফুড ব্লগারদের দৌলতে ভাইরাল হয়ে যান তিনি। মুহূর্তে উঠে যান খ্যাতির শীর্ষে। আর তারপর থেকে বিতর্ক তার পিছু পিছু এসেছে।

কেউ কেউ অভিযোগ তুলেছে নন্দিনী এবং তার বাবা ভিডিও করার অনুমতি দেয়নি। আবার কেউ বলেন হোটেলে বসে থাকার পরেও খাবার পাওয়া যায়নি। কিন্তু এই সব কিছুর বিতর্কে মাথা না ঘামিয়ে এবার মদন মিত্র বড় সুযোগ করে দিলেন নন্দিনীকে। সেখানে উপস্থিত হয়ে সকলের অনুরোধে পালং শাকের তরকারি খেয়ে দেখেন তিনি। আর তাতেই মুগ্ধ মদন। বলে ওঠেন,’ মনে হল যেন বাড়ির খাবার খাচ্ছি’।

প্রসঙ্গত মদন জানিয়েছেন,’ বিধানসভা থেকে ফিরছিলাম। আগামীকাল আমার এলাকার একটা স্কুলের স্পোর্টস ডে আছে।। ওখানকার বাচ্চাদের লাঞ্চের ব্যবস্থা করার অনুরোধ এল। ভাবছিলাম কোথায় যাব এখন। তখনই আমাকে আমার সহযোগী ফেসবুকে নন্দিনীর এই পাইস হোটেলের বিষয়টি দেখায়। শুনে এখানে এসে দেখি এত এলাহি কাণ্ড’।

নন্দিনীকে প্রায় ৩০০ প্লেট ভাত মাংসের অর্ডার দিয়েছেন মদন মিত্র। এত বড় ব্যক্তিত্বের থেকে এত বড় অর্ডার পেয়ে আপ্লুত নন্দিনীও। দিদি নাম্বার ওয়ানের মঞ্চে এসে তিনি জানিয়েছিলেন আগে যেখানে কুড়িটা আর বেশি প্লেট বিক্রি হতো না এখন সেখানে ৬০ থেকে ৭০ টা প্লেট নিমিষে শেষ হয়ে যায়। পাশাপাশি তার ছেলেবেলার বিভিন্ন ঘটনার কথা তুলে ধরেছেন তিনি। কিভাবে হঠাৎ করে এখানে আসা। তার আগে কি করতেন। একটা সময় বাড়িতে খারাপ পরিস্থিতির শিকার সবকিছুই সাবলীল ভাবে তুলে ধরেছেন তিনি।

Back to top button