ভাইরাল

“চুপ! একদম চুপ” প্রেস কনফারেন্সে সাংবাদিককে শাসালেন পরিচালক অনীক দত্ত, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

সম্প্রতি এসএসসি দুর্নীতি মামলা নিয়ে এক বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল বিদ্বজনেদের সাথে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রিয় পরিচালক অনীক দত্ত। সেই বৈঠকে ডাকা হয় প্রেস কনফারেন্সও। বিভিন্ন সংবাদ সংস্থা থেকে সেখানে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিকেরা। এমন একটি সভায় হঠাৎই এক সাংবাদিকের উপর চড়াও হন “অপরাজিত” খ্যাত পরিচালক অনীক দত্ত।

শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিতে বিদ্বজনেদের সভায় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষাবিদ পবিত্র সরকার, অভিনেতা রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়, দেবদূত ঘোষ, চন্দন সেন, মানসী সিনহা, পরিচালক অনীক দত্ত, সঙ্গীতশিল্পী দেবজ্যোতি মিশ্র, শুভেন্দু মাইতি, আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য সহ অন্যান্য আরো সকলে। এই সভাতেই হঠাৎই এক সাংবাদিকের প্রশ্নে ক্ষুদ্ধ হন পরিচালক। তাকে বলতে শোনা যায়, “আমার ফেসবুক দেখুন। কী বলতে চান আমি বিজেপির দালালি করি? চোপ! একদম চুপ করে থাকুন।” অবশেষে তাকে সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন বিকাশ ভট্টাচার্য।

প্রসঙ্গত বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য হলেন সিপিএমের বর্ষীয়ান নেতা এবং প্রখ্যাত আইনজীবী। তাকে এক সাংবাদিক বামপন্থী আমলের ‘অনিলায়ন’ বিতর্ক ও হোল টাইমারদের চাকরি প্রসঙ্গে উত্তর দিতে বলেন। এই প্রশ্নের জবাব দেন আইনজীবী। এত অবধি প্রেস কনফারেন্সে সব ঠিকভাবেই এগোচ্ছিল। তবে এর পরেই ছন্দপতন হয় যখন এক সাংবাদিক অনীক দত্ত – র কাছে জানতে চান যে তাকে এ বিষয়ে সিপিএমের কোনো মঞ্চে কথা বলতে দেখা যায় না কেন? আবার বিজেপির বিরুদ্ধেও প্রত্যক্ষভাবে তাকে কিছু এখনো পর্যন্ত বলতে দেখা যায়নি এমন কেন? তখনই ভূতের ভবিষ্যৎ খ্যাত পরিচালক মেজাজ হারান। উগ্রকন্ঠে শাসিয়ে ওঠেন সাংবাদিককে।

এই ঘটনা মাত্রছাড়া হতে শুরু করলে সামাল দেন বিকাশ বাবু। পরিচালককে মাথা ঠাণ্ডা রাখতেও বলা হয় কিন্তু তিনি বলেই যান নিজের কথা অনর্গল। এমনকি পরিচালকের থেকে মাইক নিয়ে নেওয়া হয় তারপরেও তিনি থামেননি। এই ঘটনায় আইনজীবী ক্ষমা চেয়ে নেন সকল সাংবাদিকদের কাছ থেকে। কিন্তু তারপরেও অনীক বাবু বলেন বিকাশ দা ক্ষমা চাইছেন ঠিকই কিন্তু আমি থামবো না। এরপরই সাংবাদিক সম্মেলন উঠে যায়। তবে এহেন ঘটনায় অর্থাৎ সাংবাদিকের অপমানে বেশ সমালোচিত হচ্ছেন পরিচালক।

Back to top button