ভাইরাল

লজ্জা-ঘেণ্ণার পাঠ চুকিয়ে নিশিঠেকে ‘বেশরম’ হলেন অপরাজিতা, বড়দিনের রাতে শরীরী উষ্ণতা ছড়ালেন লক্ষ্মী কাকিমা, ছকভাঙা অবতারে ধরা দিতেই হইচই নেট মাধ্যমে

ছোটবেলা থেকেই নাচতে ভালবাসেন তিনি। কখনো বাড়িতে কখনও নাচের স্কুলে। আবার কখনো সোশ্যাল মাধ্যমে রিলস বানান অপরাজিতা আঢ্য(Aparajita Adhya)। ‘সামি সামি’ হোক অথবা ও ‘আন্টাভা’ নতুন গান ভাইরাল হলেই তার সঙ্গে রিলস(Reels) বানান অপরাজিতা। তবে এবার ‘বেশরম’ হলেন তিনি। লজ্জা- ঘেন্নার পাঠ চুকিয়ে লাল গাউনে লক্ষ্মী কাকিমা এবার হলেন বেশরমের দীপিকা।

আচ্ছা বড়দিনের(Christmas) আনন্দে শহরে যখন ভীড় থিক থিক করছে তখনই শহরের এক নিশিঠেকে শাহরুখ-দীপিকার ‘বেশরম’ গানে উদ্দাম নাচ নাচলেন তিনি। তবে শুধু নাচ নয়। তার মুখভঙ্গিমাও স্পষ্ট ভিডিওতে। টেলিপাড়ার (Tollywood)দর্শক অন্তত তাকে এইরূপে চেনেন না। একেবারে ছক ভাঙা অবতারে হাজির তিনি।

যে গানকে নিয়ে গোটা দেশে রাজনৈতিক তরজা চলছে। কোথাও নায়ক নায়িকার মুন্ডুছেদের আলোচনা চলছে। একটা বড় গেরুয়াশিবির যখন এই গানের প্রতিবাদ করছে ঠিক তখনই এই গানে কোমর দোলাতে দেখা গেল তাকে। যেন কুছ পরোয়া নেহি। আর এই গান ভালো লেগেছে তাই তিনি যত ইচ্ছা নাচবেন। এই ভিডিও(Viral Video) যেন বারবার সেটাই প্রমাণ করছে।

কাজ নিয়ে সব সময় ভীষণ ব্যস্ত থাকেন অপরাজিতা। বসে থাকার সময় নেই তার। কিছুদিন আগেই মুক্তি পেয়েছিল কথামৃত ছবিটি। পাশাপাশি লক্ষ্মী কাকিমা ধারাবাহিকও কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। তবে আজকাল আর বেশি কথাবার্তা নাকি বলছেন না অপরাজিতা। কারণ হিসেবে জানিয়েছেন আসলে বলা হয় যে জীবনে যখন কেউ খুব স্থির হয়ে যাবে তখন তার সাথে সবার আগে কথা কমবে ।যারা সাধক হন তারা কিন্তু খুব কম কথা বলেন। ঠিক সেই রকম এর মধ্যে যখন স্থিরতা আসবে সেই বোধ আসবে। ভাষা অনেক কমে আসবে নিজে থেকেই। তাই আগে যতটা বকবক করতাম এখন তার সিকি ভাগও করি না।

বলতে বলতেই চলে গিয়েছে অতীতে। বললেন, অতীতকে তো বদলানো যায় না আমরা সবাই একটা ছোটবেলায় বাঁচি। জীবনে অনেক কিছু পেতে গেলে কিছু হারাতে হয়। যখন বড় হয়ে যায় তখন শৈশবকে হারিয়ে ফেলি। যখন কম কথা বলি তখন বেশি কথা বলাটাকে হারিয়ে ফেলি। সবেরই প্রয়োজন আছে।

তবে এত সফল হয়েও আজ কোথাও গিয়ে জীবনে অপ্রাপ্তি রয়ে গিয়েছে তার। জানালেন যখন সবকিছু পেলাম তখন আর বাবা কিছুই দেখা যেতে পারলেন না।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Aparajita Adhya (@adhyaaparajita)

Back to top button