ভাইরাল

“এত খারাপ অভিনয়, অ্যাক্টিং স্কুল চালান কীভাবে?” – কালার্স বাংলার মহিষাসুরমর্দিনী তে শিবের অভিনয় করে কটাক্ষের শিকার সম্রাট

গতকাল গিয়েছে মহালয়া। আর গতকাল সম্প্রচারিত হয়ে গিয়েছে মহালয়ার বিশেষ অনুষ্ঠানের সম্প্রচার। প্রতিটি প্রাইভেট চ্যানেল তাঁদের মত করে নিজেদের একটি একটি শো করে সেটি সম্প্রচার করেছে নিজেদের চ্যানেল থেকেই। স্টার জলসা, জি বাংলা এবং কালার্স বাংলা এই তিনটি চ্যানেল মূলত বাংলা বিনোদন মাধ্যমের বেশ পরিচিত নাম। তাই দর্শকও একপ্রকার মুখিয়ে থাকে বলতে পারেন যে এদের এই বিশেষ অনুষ্ঠান ঠিক কেমন হতে চলেছে তা দেখার জন্য। কখনো কখনো খুবই প্রশংসা করা হয় আবার কখনো কখনো প্রশংসার জায়গায় চরম হাসি-ঠাট্টার রোল ওঠে কোন কোন অভিনেতা বা অভিনেত্রী কে নিয়ে। ঠিক যেমন এবার খিল্লি করা হচ্ছে কালারস্ বাংলার মহিষাসুরমর্দিনী শোতে যিনি শিব সেজেছিলেন তাঁকে নিয়ে। এই শিবের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছিল অভিনেতা সম্রাট মুখোপাধ্যায় কে। তাঁকে নিয়ে রীতিমতো সোশ্যাল মিডিয়াতে এখন খিল্লির ঝড় উঠেছে।

অভিনেতা সম্রাট মুখোপাধ্যায়ের এই শোতে অভিনয় দেখে নানান রকম প্রশ্ন তুলেছে সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশ। আমরা সকলেই জানি অভিনেতার কলকাতা শহর সহ বিভিন্ন জায়গায় বেশ কয়েকটি অ্যাক্টিং স্কুল রয়েছে। অভিনেতা নিজেও একজন অভিজ্ঞ অভিনেতা হওয়ার দরুন এই স্কুলে প্রত্যেক বছর প্রচুর ছেলেমেয়ে অভিনয় নিয়ে প্রশিক্ষণ করে বেরোয়। এমনকি সেখানে একটি গ্রুমিং সেন্টারে রয়েছে। তার কারণ সম্রাট একসময় প্রসিদ্ধ মডেলও ছিলেন। তাই সেখানে মডেলিং বিষয়ে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়ে থাকে। কিন্তু নেটপাড়া প্রশ্ন তুলেছেন সেখানেই যে যার নিজের এতগুলো অ্যাক্টিং স্কুল সেখানে তাঁর অভিনয় এত নিম্নমানের কেন? এই ধরনের অভিনয় হলে তিনি কি শেখান ছাত্র-ছাত্রীদের?

নেটিজেনরা আরো বলেন যে হিন্দু পুরাণে ত্রিদেবের সম্পূর্ণ বর্ণনা দেওয়া আছে। সেখানে ভগবান শিবের যে ধরনের বর্ণনা দেওয়া আছে বা তাঁর চরিত্রের যা বর্ণনা দেওয়া হয়েছে তাঁর সাথে সম্রাট অভিনীত শিবের কোন মিল নেই। এমনকি শিবের রুদ্র নৃত্যের যে বর্ণনা দেওয়া হয়েছে তাঁর সাথেও সম্রাটের কোন নৃত্য ভঙ্গির কোন মিল নেই। যদিও টিজার দেখেই খিল্লি করেছিলেন অনেকেই। তখনই একজন লিখেছিলেন, “শিব কাঁদছেন, শিবের মনস্তত্ত্ব দুর্বল, এসব কোথায় পাওয়া গিয়েছে? আষাঢ়ে গল্প জুড়ে মহালয়ার প্লট তৈরি করেছে কালার্স”। কিন্তু এরপরেই যখন মহালয়ার দিন সকালে সম্পূর্ণ অনুষ্ঠানটি সম্প্রচারিত হলো তারপরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমত সরগোল পড়ে গিয়েছে সম্রাট কে নিয়ে। চূড়ান্তভাবে কটাকে শিকার হতে হচ্ছে অভিনেতাকে।

যদিও শুধু সম্রাটের অভিনয় বলা ভুল হবে। পুরো স্ক্রিপ্ট এমনকি ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক সহ সবটাই বেকার মনে করছেন দর্শক। সকলের উদ্যাম তান্ডবের ভীত হয়ে গিয়েছিলেন শিব? মহামায়ার ব্রহ্মময় রূপ দেখে ভয়ে শিটিয়ে গিয়েছিলেন তিনি? স্বয়ং পরমেশ্বর হয়ে সে তার মনস্তত্ত্ব বাদ দিয়ে সবকিছু ছেড়েছুড়ে হাত পা ছড়িয়ে কাঁদতে বসেছিলেন? এমনকি পরমেশ্বরের রুদ্র নৃত্য এত খারাপ? আর তার থেকেও বাজে হল তার ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক। মূলত সম্পূর্ণ সঠিক নিয়েই দর্শক প্রশ্ন চিহ্ন দাড় করাচ্ছেন। আর তার সাথে সম্রাটের অভিনয় নিয়ে খিল্লি এখনো অবধি চলছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

Back to top button