ভাইরাল

গোটা সংসারের দায়িত্ব একমাত্র তাঁর কাঁধেই! রোজগারের জন্য এই বিশাল ঠাণ্ডার রাতে ভাপা পিঠে বিক্রি করছে B.A পাশ তরুণী, পিঠে বানিয়েই বিএ পাস করেছে তরুণী

আমাদের চারপাশে এমন অনেক মানুষ রয়েছেন যারা প্রতিদিন রীতিমতো লড়াই করে বেঁচে থাকেন। তাদের জীবনে অভাব থাকলেও, এগিয়ে যাওয়ার প্রবল ইচ্ছা রয়েছে তাদের মনে যা তাদের লড়াই করতে শক্তি যোগায়। সম্প্রতি তেমনি এক তরুণীর লড়াই করে এগিয়ে যাওয়ার গল্প উঠে এসেছে সকলের সামনে।

বর্তমান যুগে সোশ্যাল মিডিয়া আমাদের কাছে বিনোদনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হয়ে উঠেছে। তবে এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা এমন অনেক কথা জানতে পারি যা আমাদের আবেগপ্রবণ করে তোলে। সম্প্রতি জানা গেছে শুধুমাত্র ভাপা পিঠে বানিয়ে এক তরুণী বিএ পাস করেছে। পাশাপাশি এই ছোট বয়সেই নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছে গোটা সংসারের দায়িত্ব। সেকথা নিজের মুখেই জানিয়েছে সে।

জানা গিয়েছে, এই তরুণী সরাইহাটে থাকে। ২০২০’তে দক্ষিণ দিনাজপুরের বুনিয়াদপুর কলেজ থেকে বিএ পাস করেছে সে। নিজের পড়াশোনার খরচ নিজেই চালাতে এই তরুণী। পাশাপাশি সমস্ত সংসার তাকেই টেনে নিয়ে যেতে হয়। তার বাড়িতে রয়েছে তার অসুস্থ বাবা, ভাই, দিদি ও দাদু। সংসারে সেই একমাত্র রোজগেরে। বাবা অসুস্থ থাকার কারণে তিনি কাজ করতে পারেন না। তার দাদু বাড়িতেই থাকেন। তার দিদিও বিয়ে পাস করেছে। ভাই উচ্চমাধ্যমিক দেবে। তার মা নেই তাই সমস্ত সংসার দেখেশুনে রাখে সে।

তার দিদি বিশেষ কারো সাথে মিশতে পারে না। সেই জন্যেই বাড়ির বাইরে বেরিয়ে কাজ করতে পারেনি। তবে বাড়ির সমস্ত কাজ সামলে নেয় তার দিদি। এমনকি পিঠের বিভিন্ন সরঞ্জাম বানাতেও তাকে সাহায্য করে দেয় সে।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে এক তরুণী নিজের মনে একা একা বসেই ভাপা পিঠে বানিয়ে তা বিক্রি করছে। সেখানে তাকে সাহায্য করার মতো কেউ নেই। সবটা একাই করছে সে। গোটা শীতকাল জুড়ে বিভিন্ন ধরনের পিঠা বানিয়েই বিক্রি করে এই তরুণী, তা নিজের মুখেই জানিয়েছে। তবে গরমকালে পিঠে নয়, জাল বানিয়ে সংসার চালায় সে। ভবিষ্যতে উন্নতি করার জন্য নার্সিংয়ের প্রশিক্ষণ নিচ্ছে এই তরুণী। তার মুখ থেকে তার লড়াই করে এগিয়ে যাওয়ার গল্প শুনে সকলেই রীতিমতো প্রশংসা করেছে এই তরুণীর। সে যেন সফলতার সাথে ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যেতে পারে, সেই প্রার্থনাই করেছেন অধিকাংশ নেটনাগরিক।

Back to top button