Story

সাউথের এই ৫ অভিনেতা যারা রিয়েল লাইফেও সুপারস্টার, কেউ দত্তক নিয়েছেন গ্রাম, কেউ বাঁচিয়েছেন জীবন, সুপারস্টার হওয়ার পাশাপাশি রিয়েল লাইফে একজন হিরো

দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ছবিগুলির প্রতি মানুষের আকর্ষণ ধীরে ধীরে বেড়ে চলেছে। দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সুপারস্টার দের প্রতি অনেকেই নিজেদের হৃদয় দিয়ে ফেলেছেন। আল্লু অর্জুন, প্রভাস এর মত বড় বড় সুপারস্টার দের ফ্যান প্রত্যেকে। তবে দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির বেশকিছু অভিনেতা রিল লাইফে সুপারস্টার হওয়ার পাশাপাশি রিয়েল লাইফে আসল হিরো।

১. নাগার্জুন : বর্তমানে দেশের কোনায় কোনায় ছড়িয়ে পড়েছে নাগার্জুনের সুখ্যাতি। তিনি তার প্রতিটি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে দর্শকের মনে জায়গা করে নিয়েছেন। সম্প্রতি তিনি হায়দ্রাবাদ ওয়ারবঙ্গল হাইওয়েতে উৎপল মেডিপল এলাকায় চেঙ্গিচেলা বন ব্লকে ১০৮০ একর বনভূমির নিজে দায়িত্ব নিয়েছেন। এছাড়াও তিনি বনের উন্নয়নের জন্য ২ কোটি টাকা দান করেছেন।

২. বিশাল : ইন্ডাস্ট্রির ছবিগুলি হিন্দিতে ডাবিং করতে দেখা যায় এই অভিনেতাকে। তিনি একজন খুবই স্বহৃদয় এর মানুষ। তিনি প্রয়াত অভিনেতা পুনীত রাজকুমার এর শালা। সম্প্রতি তিনি অনাথ আশ্রম এবং ১৮০০ শিশুর শিক্ষার দায়িত্ব নিয়েছেন।

৩. মহেশ বাবু: দক্ষিণে সব থেকে স্মার্ট এবং হ্যান্ডসাম অভিনেতা হলেন মহেশ। সম্প্রতি তিনি অন্ধপ্রদেশ ও তেলেঙ্গানার দু’টি অত্যন্ত গরীব গ্রামকে দত্তক নিয়েছেন।

৪. আল্লু অর্জুন : বর্তমানে আল্লু অর্জুনে মজেছেন গোটা বিশ্ব। পুষ্পা ছবিতে অভিনয় করার পর থেকে তাঁর জনপ্রিয়তা বেড়েছে ১০ গুণ। তিনি একজন সাধারণ মানুষ হিসেবে খুব ভালো, মনের দিক থেকে তিনি অনেক বড়। নিজের জন্মদিনের দিন তিনি পার্টি করে কাটান না বরং সেই দিনটা মানসিকভাবে অসুস্থ শিশুদের সঙ্গে কাটান এবং রক্তদান করে থাকেন।

৫. পুনীত রাজকুমার : কয়েক মাস আগেই এই সুপারস্টার আমাদের থেকে চিরকালের জন্য বিদায় নিয়েছেন। কিন্তু তিনি মানুষের মনে চিরকাল থেকে যাবেন। জীবিত থাকাকালীন পুনিত ১৮০০ শিশুর শিক্ষার দায়িত্ব নিয়েছিলেন এবং করোনাকালীন পরিস্থিতিতে তাদের ৫০ লক্ষ টাকা দিয়েছিলেন।

Back to top button