Story

শুধু রিলে নয়, বাস্তবেও প্রচন্ড সাহসী যমুনা ঢাকির শ্বেতা! একবার একজন দুষ্কৃতীর সাথে মারপিট শুরু করে দিয়েছিলেন তিনি! শুনুন শ্বেতার জীবনের সেই ভয়ংকর ঘটনা

কিছুদিন আগেই শেষ হয়েছে যমুনা ঢাকি। এই ধারাবাহিকে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতেন শ্বেতা ভট্টাচার্য। অভিনেত্রী বর্তমানে দেবের বিপরীতে প্রজাপতি ছবিতে কাজ করছেন। সম্প্রতি অভিনেত্রী একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে অনেক বছর আগে তুমি রবে নীরবে ধারাবাহিকে ঝিল চরিত্রে অভিনয় করবার সময় শ্বেতা একবার জি বাংলায় দিদি নাম্বার ওয়ান এর মঞ্চে এসে তার জীবনের একটি সাহসী ঘটনার কথা বলেছিল। একটি চোরের সাথে সে কীভাবে পাঙ্গা নেয় সেই ঘটনার কথা বলেছিল তখন।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে সে রচনা ব্যানার্জিকে বলছে সে এমনিতে খুব ভীতু কিন্তু পরিস্থিতি বিশেষ এসে মাঝে মাঝে সাহসী হয়ে ওঠে। একবার সে আর তার মা একটি ওষুধের দোকানে গিয়েছিল তার হাতে দুটো ফোন ছিলো। সে যখন ওষুধের দোকানে গিয়েছে তখন থেকে সে দেখতে পাচ্ছে একটি ছেলে তাকে দূর থেকে নজর রাখছে। এরপর যখন সে রাস্তায় নামে তখন সে বুঝতে পারে তার হাত থেকে কেউ দুটো ফোন কেড়ে নেয় সে ভাবে এটি তার দাদা করছে‌। সে পিছন ফিরে দেখে একটি চোর তার দুটি ফোন কেড়ে নিয়েছে।

সে তখন আগা পিছু কিছু না ভেবে চোরটির পিছন পিছন দৌড়াতে শুরু করে এবং চোরটির কলার টেনে ধরে তার হাত থেকে দুটি ফোন কেড়ে নেয় তখন চোরটি ব্লেড চালায় আর শ্বেতার হাতে ওপর দিয়ে ব্লেডটি চলে যায়। এই পুরো ঘটনা দেখে তার মা প্রচন্ড নার্ভাস হয়ে যান তিনি এতটাই ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন যে কাউকে ডাকতে পর্যন্ত পাচ্ছিলেন না কারণ তার মুখ থেকে কোন আওয়াজই বেরোচ্ছিল না। এই সময় শ্বেতাকে চোরটি ঘুসি মারলে শ্বেতা উল্টে চোরটিকে ঘুসি মারতে থাকে। অনেকক্ষণ সময় পর যখন লোকজন আসে তখন লোকজন বেরিয়ে চোরটিকে মারতে থাকে তখন শ্বেতা চোরটিকে ক্ষমা করে দেয় আর বড় দিদির মত বলে যা বাড়িতে গিয়ে পড়াশোনা কর আর কখনো এমন কাজ করিস না।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by mithai prem (@mithailoves)

Back to top button