Story

আন্ডারওয়ার্ল্ডের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন প্রীতি জিন্টা, অচিরেই শেষ হয়ে গেল তার সুপারহিট সফল কেরিয়ার

বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী তিনি। একসময় প্রথম সারির অভিনেত্রীদের ১০ জনের মধ্যে তার নাম আসত। ৩১’শে জানুয়ারি তিনি ৪৭ বছর বয়সে পা দিয়েছেন। বলিউডের অন্যতম সাহসী অভিনেত্রী ছিলেন প্রীতি জিন্টা। একজন দক্ষ অভিনেত্রী হওয়ার পাশাপাশি তিনি যে স্পষ্ট কথা বলতে পিছপা হন না, তা অজানা নয় কারোরই। তবে তার জন্মদিনে তার সম্পর্কে কিছু তথ্য উঠে এসেছে নেটমাধ্যমের দামের পাতায়।

দক্ষ অভিনেত্রী ও সাহসী হওয়ার পাশাপাশি তিনি একজন স্বহৃদয় মানুষ। নিজের ৩৭ বছরের জন্মদিনে অনাথ আশ্রমের ৩৪ জন কন্যাসন্তানের ভরণ-পোষণের দায়িত্ব নিয়েছিলেন তিনি। তাদের এখনো দেখভাল করে যাচ্ছেন অভিনেত্রী। তাদের সমস্ত দরকার তিনি মিটিয়ে দেন। উল্লেখ্য, ২০১০’এ ইউনিভার্সিটি অফ ইস্ট ইংল্যান্ড থেকে কলা বিভাগে সাম্মানিক ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন।

বলিউডের সাহসী নায়িকা হিসেবে তার পরিচিতি রয়েছে সকলের মাঝে। তিনি বলিউডকে প্রতিবাদী হতে শিখিয়েছেন। বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় ব্লকবাস্টার হিট ছবি ‘চোরি চোরি চুপকে চুপকে’এর শুটিংয়ের সময় এমন একটি ঘটনা ঘটে যা শুনলে চমকে যাবেন আপনারাও। এই ছবির প্রযোজক ছিলেন হিরে ব্যবসায়ী ভরত শাহ। জানা যায়, সেইসময় তার সাথে আন্ডারওয়ার্ল্ডের এক গভীর সম্পর্ক ছিল। তিনি ছবির শুটিংয়ে প্রচুর টাকাও ঢেলেছিলেন সেইসময়। ছবির কলাকুশলীরা তার বিরুদ্ধে মুখ খোলার সাহস পাননি কেউই। কারণ মুখ খুললেই তাদের কাছে আসতো খুনের হুমকি।

তবে সেইসময় খুনের হুমকি তোয়াক্কা না করে সাহস গিয়েছিলেন প্রীতি জিন্টা। তিনি মুম্বাই পুলিশকে ভরতের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে সহায়তা করেছিলেন। তিনি একাই সাহস দেখিয়েছিলেন সেইসময়। আর অভিনেত্রীর এমন সাহসী কাজের জন্য বলিউডের সাহসী অভিনেত্রী হিসেবে ‘গডফ্রে ফিলিপস ব্রেভারি অ্যাওয়ার্ড’ পান। এই সম্মানে ভূষিত হয়ে তিনি প্রচণ্ড খুশি হয়েছিলেন। এমনকি তার এই সাহসীকতার জন্য বহু বড় বড় তারকাদের কাছ থেকে প্রশংসাও পেয়েছিলেন অভিনেত্রী। উল্লেখ্য, ‘চোরি চোরি চুপকে চুপকে’ ছবিতে প্রীতি জিন্টা ছাড়াও মুখ্য অভিনয় করেছিলেন সালমান খান ও রানি মুখার্জ্জী।

Back to top button