Story

অভিনেতা কখনোই হতে চাননি, ছোট থেকেই ছিলেন দক্ষ সাঁতারু! হাজারো বিতর্ক সত্ত্বেও বলিউডের ভাইজান ভাগ্যক্রমে হয়েছেন অভিনেতা

বলিউডের ভাইজান সালমান খান। ইন্ডাস্ট্রিতে প্রথম সারির অভিনেতাদের মধ্যে তিনি অন্যতম। তবে জানা গেছে, তিনি কোনদিনই অভিনেতা হতে চাননি। তিনি হতে চেয়েছিলেন সাঁতারু অথবা বাবার মতো চিত্রনাট্যকার হতে চেয়েছিলেন। তবে ভাগ্যক্রমে তিনি অভিনেতা হয়েছেন, কামিয়েছেন অনেক নাম ও যশ। অভিনেতা হিসেবে সাফল্যের শিখরে পৌঁছে গেছেন তিনি। বর্তমানে তাকে পর্দায় একবার দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকেন তার অগণিত অনুরাগীরা।

জানা গিয়েছে অভিনেতা, হাই স্কুল লেভেলের চ্যাম্পিয়ন সুইমার ছিলেন। একসময় সাঁতারু হওয়ার ভূত চেপেছিল মাথায়। তবে শেষ পর্যন্ত সাঁতারু হওয়া তার হয়নি। তার বাবা সেলিম খান একজন চিত্রনাট্যকার। পরবর্তীকালে বাবার মত একজন চিত্রনাট্যকার হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন সালমান খান। এরপরে হঠাৎ করেই সেইসময়ে এই ছিপছিপে রোগা হাসি-খুশি ছেলেটা সুযোগ পেয়ে যায় লিমকার অ্যাডে। দর্শকরাও সেই ছেলেটিকে প্রথম দেখাতেই পছন্দ করতে শুরু করেছিলেন। এর পরেই তার জীবনে আসে অন্য মোর।

১৯৮৮ সালে ‘বিবি হো তো অ্যায়সি’ ছবির মাধ্যমে অভিনয় জগতে ডেবিউ ঘটে অভিনেতার। এরপরেই ‘ম্যায়নে পেয়ার কিয়া’-র মতো ছবিতে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় অভিনয় করবেন না বলে জানিয়ে দিলে এই ছবির অফার দেওয়া হয় সালমান খানকে। এই ছবিতে অভিনয় করার পর পুরোপুরি পাল্টে যেতে থাকে অভিনেতার জীবন। ধীরে ধীরে তিনি হয়ে ওঠেন বলিউডের ভাইজান। এরপর থেকে একের পর এক হিট জনপ্রিয় ছবি উপহার দিতে থাকেন নিজের দর্শকদের।

শুরুর দিন থেকে অভিনেতার নাম জড়িয়েছে একাধিক বলি অভিনেত্রীদের সাথে। তবে শেষপর্যন্ত কোনো সম্পর্কই টেকেনি। সবকিছুর নিজের চিত্রনাট্যকার হওয়ার স্বপ্ন ভোলেননি অভিনেতা। বর্তমানে তার নিজস্ব একটি প্রযোজনা সংস্থা রয়েছে। এমনকি ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি ছবির চিত্রনাট্যও লিখে ফেলেছেন তিনি। সাঁতারু হওয়ার স্বপ্ন পূরণ করতে না পারলেও একজন চিত্রনাট্যকার হিসেবে তিনি নিজের স্বপ্ন পূরণ করতে পেরেছেন। ২৭’শে ডিসেম্বর তার ৫৬’তম জন্মদিনের দিন এই সমস্ত কথা আবারও উঠে এলো সকলের সামনে। এদিন অভিনেতাকে তার অগণিত ভক্তরা শুভেচ্ছা ও শুভকামনায় ভরিয়ে দিয়েছেন।

এই বছরও অভিনেতা তার প্রিয় ফার্ম হাউজে সময় কাটিয়েছেন নিজের জন্মদিনে। জন্মদিনের আগে হাতে সাপের কামড় খেয়েছেন তিনি, তবে বর্তমানে চিকিৎসার পর সুস্থ রয়েছেন অভিনেতা, তিনি নিজের মুখেই জানিয়েছেন মিডিয়ার সামনে। তবে অসুস্থতার মধ্যেও জন্মদিনের দিন মধ্যরাতে পাপারাজিৎদের ক্যামেরার সামনে হাসিমুখে দাঁড়াতে ভোলেননি। সম্প্রতি সেই ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

Back to top button