Story

কষ্টের সময় করেছিলেন জুতোর দোকানে কাজ! মাত্র ১৮ বছর বয়সে শুরু করেছিলেন নিজের ছোট্ট জুতার ব্যবসা, বর্তমানে তিনি ১৩০০ কোটি টাকার খাদিম কোম্পানির মালিক

জীবনে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার জন্য জেদ এবং সৎ পথে রোজগার করার ইচ্ছা থাকলে মানুষ সবকিছু করতে পারে। তা আরো একবার প্রমান করে দিলেন সত্য প্রসাদ রায় বর্মণ। একসময় খুব বেশি টাকা ছিল না তার হাতে। কিন্তু নিজের কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে মাত্র ১৮ বছর বয়সেই নিজের জুতার ব্যবসা শুরু করেন তিনি। কিন্তু বর্তমানে নিজের কঠোর পরিশ্রম এবং সততার মাধ্যমে তিনি ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় জুতোর ব্র্যান্ড খাদিম এর মালিক। বর্তমান সময়ে খাদিম ইন্ডিয়ার বাজার মূল্য পৌঁছেছে ১৩০০ কোটি টাকার বেশি। হ্যাঁ খাদিমের মালিকই হলেন সত্য প্রসাদ রায় বর্মণ। সত্য বাবু কলকাতারই বাসিন্দা। একদিন বাড়িতে অশান্তি করে বেরিয়ে যান চলে যান সোজা মুম্বাই। সেখানে বেশ কিছুদিন মুম্বাইয়ের একটি জুতার দোকানে কাজ করেন। কিন্তু অবশেষে ১৯৬৫ সালে বাড়ি ফেরার সিদ্ধান্ত নেন সত্যবাবুর এবং বাড়ি ফিরে চিৎপুরে কেএম খাদিমের একটি ছোট্ট দোকান কিনে নেন তিনি।

সেখান থেকে নিজের ব্যবসার ভিত গড়ে নিয়েছিলেন সত্যবাবু। ব্যবসা করার সময় একটা কথা তিনি ভালোমতো বুঝে গিয়েছিলেন যে জুতার ব্যবসা করতে গেলে সস্তায় সুন্দর জুতো বানানো হলো বুদ্ধিমানের কাজ। আর সত্যবাবুর এই বুদ্ধি কাজে লেগে গেল তার ব্যবসায়। বর্তমানে শুধুমাত্র কলকাতায় নয় বরং ভারতবর্ষের কোনায় কোনায় রয়েছে খাদিমের শো রুম এবং রমরমিয়ে বিক্রি হচ্ছে জুতো।

১৯৮০ সাল নাগাদ কোম্পানি আরো দ্রুতগতিতে বাড়তে থাকে। সেই সময় সত্যপ্রসাদ রায় বর্মন ছেলে সিদ্ধার্থ রায় বর্মন কোম্পানিতে যোগদান করেন। ফুটওয়্যার কোম্পানি খাদিম ইন্ডিয়া লিমিটেড এর মূল ব্র্যান্ডের বৃদ্ধি, আয় এবং মার্জিন আরও দ্রুত বৃদ্ধি করাই লক্ষ্য তাদের। সিদ্ধার্থর হাত ধরেই এই কোম্পানির আরো দ্রুতগতিতে সাফল্য পেতে থাকে। ব্যবসা আরো দ্বিগুন হয়ে ওঠে। ব্রিটিশ ওয়াকার, শ্যারন, ল্যাজার্ড, ক্লিও এবং সফটটাচ সহ খাদিমের মোট নয়টি উপ-ব্র্যান্ড রয়েছে এখনো পর্যন্ত।

Back to top button