Story

‘বিদেশি সুর কেন চুরি করেন?’ মীর সোজা প্রশ্ন করেন বাপ্পি লাহিড়িকে, মীরের বাঁকা প্রশ্নের সোজাসাপ্টা উত্তর দিয়েছিলেন বাপ্পি লাহিড়ী

দুদিন আগেই জনপ্রিয় সঙ্গীত পরিচালক ও গায়ক বাপ্পি লাহিড়ী প্রয়াত হয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন তিনি। হাসপাতালেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন গায়ক। চলতি মাসে সঙ্গীত জগৎ তার তিন নক্ষত্রকে হারিয়েছে। ফেব্রুয়ারি মাসের শুরুতেই সুর সম্রাজ্ঞী লতা মঙ্গেশকর চলে গিয়েছেন সকলকে কাঁদিয়ে। এরপরেই বাংলা সঙ্গীত জগতের গীতশ্রী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায় প্রয়াত হন। এনাদের দুজনের পরেই আরো শোক পেল গোটা ইন্ডাস্ট্রি। সকলকে ছেড়ে চলে গেলেন বাপ্পি লাহিড়ী, গোল্ডেন ম্যান।

তার চলে যাওয়ার পর তারকা জগতের বহু কলাকুশলীরা তার স্মৃতিচারণা করে পুরনো নানা কথা শেয়ার করেছেন। সম্প্রতি সকলের প্রিয় সকল ম্যান মীর বাপ্পি লাহিড়ীর সাথে একটি পুরনো স্মৃতির কথা শেয়ার করলেন সকলের সাথে। একবার এক অনুষ্ঠানে মীর সোজাসুজি বাপ্পি লাহিড়ীকে প্রশ্ন করেছিলেন তিনি বিদেশি গান থেকে সুর কেন চুরি করেন? তার জায়গায় অন্যকেউ থাকলে রীতিমত রেগে যেত এই প্রশ্নে। কিন্তু তিনি এতটুকু বিচলিত না হয়ে উত্তরে জানিয়েছিলেন, তিনি অনুপ্রাণিত হন গানগুলো শুনে। তাই তিনি সেই সুরগুলো নিজের গানে প্রয়োগ করার চেষ্টা করেন।

বাপ্পি লাহিড়ীর স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে মীর আরো বলেন, তিনি একবার জিজ্ঞাসা করেছিলেন তাকে মীর যে বিভিন্ন সময়, বিভিন্ন জায়গায়, বিভিন্ন ভাবে নকল করেন তাতে তার রাগ হয় কিনা? এই প্রশ্নের জবাবে তিনি উত্তরে জানিয়েছিলেন, “হাতি চলে বাজার, কুত্তা ভকে হাজারে”। তার ওজন বেশি হলে এই প্রবাদটি বলেননি তিনি। নিজে ঠিক কত বড় মাপের সুরকার সেটাই বুঝিয়েছিলেন তিনি। তারা এমন বুদ্ধিদীপ্ত উত্তর শুনেই বোঝা যাচ্ছে তিনি ঠিক কত বড় মাপের সুরকার ছিলেন। শেষ বয়স অবধি বলিউডের পাশাপাশি টলিউডে সমানভাবে রাজ করে গিয়েছেন তিনি। তার চলে যাওয়া সঙ্গীত জগতের অপূরণীয় ক্ষতি, যা পূরণ হওয়ার নয়।

Back to top button