Story

সব সময় মা, কাকিমা, শাশুড়ির ভূমিকায় অভিনয় করে আসলেন তুলিকা বসু! কখনোই ইন্ডাস্ট্রি থেকে পেলেনা যোগ্য সম্মান? টলিউডের এই জনপ্রিয় সুন্দরী অভিনেত্রী মনে আজ আক্ষেপ?

বাংলা টেলিভিশন জগতের জনপ্রিয় অভিনেতাদের মধ্যে অন্যতম একজন হলেন তুলিকা বসু। ১৯৯৬ সালে প্রথমবার টেলিভিশনে ‘এবার জমবে মজা’ ধারাবাহিকের হাত ধরে ডেবিউ করেন অভিনেত্রী। ধারাবাহিক জগতে আসার আগে একজন খুব সাধারণ গৃহবধূ ছিলেন তুলিকা দেবী। তারপরে হঠাৎ অভিনয় জগতে প্রবেশ করেন। ঘর সংসার সামলানোর পাশাপাশি একটি স্কুলে পড়াতেন তুলিকা বসু। তুলিকা বসুর মেসোমশাই প্রীতম মুখোপাধ্যায় ছিলেন একজন স্ক্রিপ্ট রাইটার। পরিচালক বুদ্ধদেব দাশগুপ্তের একজন খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধু। সেখান থেকে মাঝে মাঝে বুদ্ধদেব বাবুর ছবি দেখতে মেসোমশাইয়ের সঙ্গে যেতেন তুলিকা দেবী। তারপরে মেসোমশাই তুলিকা দেবীকে এবার জমবে মজা ধারাবাহিক সুযোগ করে দেন অভিনয় করার।

এই সিরিয়ালে অভিনয় করার পরেই দেবাংশু সেনগুপ্তের মহাপ্রভুতের অভিনয় করার সুযোগ পান। ‘কে আপন কে পর’ থেকে শুরু করে ‘অন্তরসত্তা’, ‘বাবলি’, ‘রংরুট’, ‘আদর’সহ বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় করেছেন। পাশাপাশি ধারাবাহিক গুলিতেও চুটিয়ে অভিনয় করেছেন। ধারাবাহিকে বেশিরভাগ সময় আমরা অভিনেতাকে মা কাকিমা, ঠাকুমা ইত্যাদির ভূমিকায় অভিনয় করতে পাই।

তবে এত সুন্দর একজন অভিনেত্রী এতগুলো বছর ধরে একটানা মা, কাকিমা, শাশুড়ি ইত্যাদি ভূমিকাতে অভিনয় করতে করতে এতটুকু হাঁপিয়ে যাননি। বরং সমস্ত ভালবাসা দিয়েই নিজের চরিত্রকে উপভোগ করেছেন। তাহলে কি ইন্ডাস্ট্রি থেকে তুলিকা বসু কখনোই যোগ্য সম্মান পেলেন না? কারণ তাকে কখনো কখনো অন্যরকম চরিত্রে দেখা যায়নি আজ পর্যন্ত।

Back to top button