Story

ত্বরিতার ফেরানো প্রস্তাব লুফে নিয়েই ‘ওগো বধূ সুন্দরী’র ললিতা হয়েছিলেন ঋতাভরী! ধারাবাহিকে ললিতার চরিত্রের জন্য ঋতাভরী নয় বেছে নেওয়া হয়েছিল আজকের এক জনপ্রিয় অভিনেত্রী কে

একসময় স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ছিল “ওগো বধূ সুন্দরী”। সে ধারাবাহিকের মুখ্য চরিত্রের নাম ছিল ললিতা। সকলে অজান্তেই খুব কম সময়ের মধ্যেই দীর্ঘদিনের জন্য দর্শক হৃদয়ে জায়গা করে নেয় ললিতা। সেই চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছিল আজকের অ্যাক্টিং জগতের সেন্সেশন ঋতাভরীকে। কিন্তু জানেন কি এই চরিত্রের জন্য কাজ করা হয়েছিল অন্য আরেকজনকে।

সালটা তখন ২০০৮। তিনি তখন কোন নামকরা অভিনেত্রী বা স্ট্রাগল করা অভিনেত্রীও নন। শুধুই খেয়ালেই মেতে উঠেছিলেন ম্যাডক্সের পুজোর আড্ডায়। নিতান্তই কলেজ পড়ুয়া তিনি তখন। নাম ত্বরিতা চট্টোপাধ্যায়। তাঁর অজান্তেই তাঁর ছবি প্রকাশিত হয় সংবাদ মাধ্যমে। তারপরেই নতুন মুখের কাছে ডাক আসে অভিনেত্রী হওয়ার।

কিন্তু তখন অভিনেত্রী সেই অফার ফিরিয়ে দেন। আমরা সকলেই নিজের চোখে দেখেছি ধারাবাহিকের ললিতা ও ঈশানের যে রসায়ন তা ঠিক দর্শকের কতটা মন ছুঁয়ে গিয়েছিল। নিজের কাজের সুযোগ হাতছাড়া করে অভিনেত্রী ঠিক কতটা আফসোস হয় এ বিষয়ে প্রশ্ন করায় অভিনেত্রী সংবাদ মাধ্যমকে জবাব দেন, “তখন আমি জানতাম না ধারাবাহিকটি এত সফল হবে। বাড়ি থেকে অভিনয় করার অনুমতি পাইনি। তাই না বলে দিতে হয়েছিল। তবে রবিজির সঙ্গে কাজ না করতে পারার আফসোস থাকবে। ওঁর সান্নিধ্যে থাকলে হয়তো আরও অনেক কিছু শিখতে পারতাম।”

তিনি তখন একজন কলেজের পুষ্টিবিদ্যার ছাত্রী। এদিকে মাও দেননি অভিনয় করার পারমিশন। অভিনেত্রী বলেন, “ছোটবেলায় বাবাকে হারিয়েছি। মা একা আমাকে বড় করেছেন। এই পেশা সম্পর্কে তাঁর বিশেষ কোনও ধারণা ছিল না। আমিও মায়ের কথা অমান্য করতে চাইনি। রবিজির সঙ্গে কাজ করার সুযোগ হয়নি ঠিকই। কিন্তু উনি আমাকে খুবই স্নেহ করতেন। আজ ওঁর কথা মনে পড়ে।”

প্রসঙ্গত অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন ললিতার চরিত্রে অভিনয় করতে না পেরেও নিজের কাজ নিয়ে তিনি যথেষ্ট সন্তুষ্ট। মূল চরিত্রে না হলেও তাঁকে দেখা গিয়েছে বেশ কিছু পার্শ্ব চরিত্রে। তাঁকে শেষ দেখা গিয়েছে জি বাংলার ‘কড়ি খেলা’ ধারাবাহিকে। এ ছাড়াও ‘করুণাময়ী রাণী রাসমণি’, ‘বাঘ বন্দি খেলা’, ‘কাদম্বিনী’র মতো একাধিক জনপ্রিয় ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন তিনি।

Back to top button