Science and Technology

কপাল পুড়ে ছারখার হতে পারে মুকেশ আম্বানির! মুকেশ আম্বানির JIO-কে টেক্কা দিতে ময়দানে নামছে এশিয়ার সবথেকে ধনী ব্যাক্তি গৌতম আদানির টেলিকম কোম্পানি

বর্তমানে এশিয়ার সবথেকে ধনী ব্যক্তি হলেন গৌতম আদানি। এবারে তিনি পা রাখতে চলেছেন টেলিকম সংস্থার জগতে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে গৌতম আযানের নতুন টেলিকম সংস্থার সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে চলেছে মুকেশ আম্বানির jio এবং airtel কোম্পানির। ভারতীয় বাজারে টেলিকম সংস্থাগুলির আরও হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের জন্য বাজারে নতুন সস্তা টেলিকম কোম্পানি আনতে চলেছেন গৌতম আদানি। সম্প্রতি সূত্রের খবর অনুযায়ী গৌতম আদানি যোগ দিতে পারেন টেলিকম কোম্পানির স্পেকট্রাম পাওয়ার জন্য।

গৌতম আদানির সংস্থাটি ইতিমধ্যেই 5G স্পেকট্রাম পাওয়ার জন্য নাকি আবেদনও করে ফেলেছে। আসলে 5G স্পেকট্রামের আবেদন করার শেষ তারিখ ছিল ৮ জুলাই, আর সেখানে আবেদন এসেছে ৪টি টেলিকম কোম্পানির। Jio, Airtel, Vi বাদে আরো কে আবেদন করেছে তাই নিয়ে জিজ্ঞাসার শেষ নেই সকলের মধ্যে। আগামী ২৬ জুলাই সরকারি তরফে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে এই স্পেকট্রাম নিলাম। সেখানেই দেশের তিনটি বড় সংস্থা Jio, Airtel এবং Vi আবেদন করেছে কিন্তু নিলামের চতুর্থ কোম্পানিটি কে তাই নিয়েই রহস্য তৈরি হয়। পরে জানা যায় যে, চতুর্থ সংস্থাটি হলো গৌতম আদানি সংস্থা ‘আদানি গ্রুপ’। এছাড়াও জানা যাচ্ছে যে, সম্প্রতি আদানি গ্রুপের এই কোম্পানি জাতীয় দীর্ঘ দূরত্ব এবং আন্তর্জাতিক দীর্ঘ দূরত্ব পর্যন্ত পরিষেবা সরবরাহ করার লাইসেন্স অর্জন করেছে।

এই মাসের আগামী ২৫ জুলাই সরকার মোট ৭২,০৯৭.৮৫ মেগাহার্জ এর স্পেকট্রাম নিলাম করতে চলেছে। আর এই স্পেকট্রাম বিক্রি করে সরকারের কাছে আসছে ৪.৩ লক্ষ কোটি টাকা। এখনো অবধি পাওয়া খবর অনুযায়ী সরকার 600 MHz, 700 MHz, 800 MHz, 900 MHz, 1800 MHz, 2100 MHz, 2300 MHz এবং 3300 MHz এবং হাই ফ্রিকোয়েন্সি ব্যান্ডের 26 GHz স্পেকট্রাম নিলামের আওতায় নিয়ে এসেছে।

এসবের মধ্যে সবচেয়ে লক্ষণীয় হলো মুকেশ আম্বানি ও গৌতম আদানির মধ্যে মুখোমুখি লড়াই। এতদিন পর্যন্ত দুজনের মধ্যে কোনরকম কোনরকম কোনো প্রতিযোগিতা ছিল না। এবার আদানির টেলিকম ক্ষেত্রে প্রবেশ করার ফলে এই প্রথম দুজনে মুখোমুখি লড়াইয়ে নামতে চলেছেন।

Back to top button