বঙ্গসফরে আসছেন অমিত শাহ,সভাস্থল সেই মেদিনীপুর,শুভেন্দুর বিজেপিতে যোগদানের সম্ভাবনা

সম্প্রতি বঙ্গসফরে এসেছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা৷ ডায়নণ্ডহারবারে এক কর্মসূচীতে যোগ দিতে যাওয়ার পথে তার কনভয়ে হামলা চালানো হয়৷ ভাঙচুর করা হয় গাড়ি৷ অভিযোগ ওঠে শাসকদলের বিরুদ্ধেই৷ নাড্ডার নিরাপত্তায় থাকা তিনজন আইপিএসকে কেন্দ্রীয় ডেপুটেশনে চেয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক৷ তবে ছাড়পত্র মেলেনি রাজ্য সরকারের তরফে৷ ফলে গোটা প্রক্রিয়া থেমে আছে এক জায়গায়৷

কনভয়ে হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে কেন্দ্র—রাজ্যের সংঘাত বেড়েছে আরও কয়েক গুণ৷ এরই মধ্যে বাংলায় আসছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ৷ রাজ্যপালের কাছে নাড্ডার কনভয়ে হামলার রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছিলেন অমিত শাহ৷ এবার নিজেই আসছেন বাংলা সফরে৷ চলতি মাসের ১৯,২০তারিখে তার কর্মসূচী রয়েছে বলে খবর৷

অন্যদিকে,তৃণমূল এই মুহুর্তে গৃহযুদ্ধে ফেসে গেছে৷ একেরপর এক বিধায়ক,সামনের সারির নেতাদের মুখে শোনা যাচ্ছে দলবিরোধী সুর৷ শুভেন্দু অধিকারী মন্ত্রীত্ব থেকে পদত্যাগ করেছেন৷ পাশাপাশি বিধায়ক পদ থেকেও নিজেকে সরিয়ে নিয়ে তার বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে৷ অন্তত এমনই কিছুটা আভাস মিলেছে শুভেন্দুর তরফেও৷

শুভেন্দুকে নিয়ে চাপানউতোরের মধ্যেই গত ৭ই ডিসেম্বর সভা মেদিনীপুর কলেজ মাঠে সভা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কৃষি আইনের বিরোধীতা করেছিলেন সেদিন মুখ্যমন্ত্রী৷ কটাক্ষ করেছিলেন বিজেপিকে৷ এই কটাক্ষের পাল্টা দিতে চলেছেন অমিত শাহ ,এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক মহলের একাংশ৷ মঙ্গলবার রাতে অমিত শাহ—এর কর্মসূচীতে বদল ঘটে হঠাৎই৷ প্রথমে ঠিক ছিল যে তিনি মেদিনীপুর স্পোর্টস কমপ্লেক্সে দলীয় নেতাদের সাথে বৈঠক করবেন৷ তারপর জানা যায় মেদিনীপুরে কলেজ মাঠে যেখানে মুখ্যমন্ত্রী সভা করেছিলেন সেখানেই সভা করবেন অমিত শাহ৷ পাশাপাশি সূত্র মারফৎ এও জানা যাচ্ছে এদিন শুভেন্দু অধিকারীও আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন৷

ফলে আপাতত কার্যত ঘুম উড়েছে বিজেপির জেলা নেতৃত্বের৷ জোরকদমে শুরু হয়ে গেছে সভার প্রস্তুতিও৷ ২০২১—এর আগে এই সভা যে হাইভোল্টেজ হতে চলেছে তা মনে করছেন অনেকেই৷