টলিউড

‘আগে ইংরেজি শিখুন’, রাইডের নাম ভুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় তীব্র কটাক্ষের শিকার অভিনেত্রী ঋতাভরী

২০০৯ সালের ৩রা আগস্ট স্টার জলসা শুরু হয় ওগো বধূ সুন্দরী নামের একটি সিরিয়াল। ওই সিরিয়ালের মাধ্যমে ক্যারিয়ার জীবনে পদার্পণ করেন ঋতাভারি চক্রবর্তী। এই অভিনেত্রী অভিনয় এর পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ অ্যাকটিভ।Facebook -এ তাঁর ২.৬ মিলিয়ন ফলোয়ার রয়েছে। Instagram -এ তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা ৩.৩ মিলিয়ন। সম্প্রতি ঋতাভারি চক্রবর্তীকে নিয়ে একটি হাসির রোল তৈরি হয়েছে নেট দুনিয়ায়।

সম্প্রতি অভিনেত্রী তার ফেসবুকে একটি পার্ক থেকে রিল ভিডিয়ো আপলোড করেছিলেন। ওই ভিডিয়োতে তিনি বৃহদাকার এক গোরিলার আকারের স্লাইড দেখিয়েছিলেন। ভিডিওটি আপলোড করে তিনি প্রশ্ন করে লেখেন, “এটা কী? কার মনে হয়েছিল এই ধরনের একটা Seesaw বানানো উচিত? কোন বাচ্চা গোরিলার বমি হয়ে বেরতে চায়?” তিনি Slide-কে Seesaw বলায় সেটাকে নিয়ে হাসিঠাট্টা শুরু হয় নেট দুনিয়ায়।

তারপর অভিনেত্রীর অনুগামীদের মধ্যে কেউ তার ভুল ধরিয়ে দিয়ে লেখেন “ওটা স্লাইড। Seesaw নয়।” আবার কেউ কমেন্ট করেছেন “দিদি ওই স্লাইড আপনার মতো বাচ্চাদের জন্য তৈরি। যাঁরা ইংরেজি ক্লাস মন দিয়ে করে না।” তবে নিজের ভুল চোখে পড়ে অভিনেত্রী ভিডিও ক্যাপশনে আবার লেখেন “হ্যাঁ, ওটা বাচ্চাদের Slide বা Slip। Seesaw নয়। কিন্তু, আমি এই ভয়ংকর জিনিসটি দেখে এতটাই চমকে গিয়েছিলাম যে ভুলেই গিয়েছিলাম একে কী বলে।”
তবে অনেকেই অভিনেত্রীকে সমর্থন জানিয়ে লেখেন, “সত্যিই এই স্লাইডটি ভয়ানক।” অপর একজন লেখেন, “বাচ্চাদের এভাবে ভয় দেখানো উচিত নয়।”

তবে কিছু জন ‘ঋতাভরী ব্যাশিং’ চালিয়ে যেতে থাকেন। একজন নেটিজেন লেখেন “গোরিলার জিভ দিয়ে স্লাইড করে নামাটা বাচ্চাদের কাছে মজার। ব্যাপারটা কিউটও। যারা এই স্লাইডে চড়ে তারা খুব ছোট নয়। ফলে তারা এত ভয় পায় না।” অপর একজনের কথায়, “বাচ্চারা এত কিছু ভেবে স্লাইডে চড়ে না। আপনি তাদের কথা না ভেবে ইংরেজি শিখুন।”

Back to top button