টলিউড

‘সার্জারি নয় মাতৃকালীন সময় হরমোনাল কারণের জন্যই নাক বড় হয়ে গিয়েছিল’, খুল্লমখুল্লা জানালেন সুপারস্টার নুসরত জাহান

সন্তান জন্ম দেওয়ার ৩ মাস পর থেকেই নিজেকে কাজের সাথে যুক্ত করেছেন টলিউডের নতুন মাম্মা নুসরাত জাহান। যা নিয়ে বহুবার তাকে সমালোচনার সম্মুখীন হতে হয়েছে কিন্তু অভিনেত্রী কিছুতেই পাত্তা দেননি। নিজে কাজ এগিয়ে গেছেন। নতুন ছবির শুটিং থেকে শুরু করে একজন সাংসদ হিসেবে যা যা দায়িত্ব রয়েছে সমস্ত কিছু পালন করেছেন।

সম্প্রতি কিছুদিন আগেই অভিনেত্রী একটি বেসরকারি রেডিও স্টেশনে হোস্ট হিসেবে নিজের শো শুরু করেছেন। ১০৪.৮ ইকশ এফ এম নুসরাত শুরু করেছে নিজের শো, ‘ইক্শ উইথ নুসরাত।’ হিন্দিতে এই শো এর পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন কারিনা কাপুর খান। আর এই বারে বাংলায় সেই দায়িত্ব ছিনিয়ে নিলেন নুসরাত। অভিনেত্রী আগেই জানিয়েছেন যে তার এই শোতে বিভিন্ন সেলিব্রিটি দের জীবনের না জানা তথ্য উঠে আসবে। অর্থাৎ অকপটে সমস্ত সত্যি কথাই বলতে হবে সেলিব্রিটিদের। ইতিমধ্যেই এই শো তে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঋতাভরী চক্রবর্তী, মদন মিত্র, তনুশ্রী চক্রবর্তী এবং সকলের প্রিয় ইউটিউবার বং গাই অর্থাৎ কিরণ দত্ত। তবে সম্প্রতি এবারে কোন অতিথি নয় নুসরাত নিজেই নিজের শো এর অতিথি হিসেবে দর্শকদের মনে সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন। খুল্লামখুল্লা ভাবে দর্শকদের মনের সমস্ত কৌতুহল দূর করেছেন তিনি।

শো চলাকালীন এক ব্যক্তি নুসরাত কে জিজ্ঞাসা করেছিল যে এই বছর নুসরাতের নেওয়া সব থেকে সাহসী পদক্ষেপ কি ছিলো? অভিনেত্রী জানিয়েছেন “আমি প্রতিটা মুহূর্তেই সাহসী পদক্ষেপ নিতে পছন্দ করি, তবে এখন তো সবটা বলা যাবেনা, তাই এ বছরের সবচেয়ে সাহসী পদক্ষেপ হিসেবে আমি বলতে চাই আমার মা হওয়ার জার্নি র কথা। মা হওয়ার এই জার্নি টা সহজ ছিল না। সব সময় নিজের আবেগগুলোকে কন্ট্রোল করতে পারতাম না ছোট ছোট ব্যাপারে কেঁদে দিতাম, আমার ছোট ছোট ব্যাপারে খুব খুশি হয়ে যেতাম। এই সময়টা মানসিক এবং শারীরিক ভাবে ভীষণ পরিবর্তন হয়।”

অনেকেই নুসরাতের নাক নিয়ে প্রশ্ন করেছেন বহুবার। অনেক নেটিজেনদের ধারণা যে নুসরাত নিজের নাকের সার্জারি করিয়েছেন। তাদের উদ্দেশ্যে নুসরাত বলেছেন যে “মাতৃকালীন সময় হরমোনের তারতম্যের জন্য আমার নাক বড় হয়ে গিয়েছে। চামড়ার রঙ টু টনদ হয়ে গেছিল, নিজেকে দেখতে তখন জেব্রার মতো লাগছিল। তবে বর্তমানে আবারো ধীরে ধীরে সমস্ত কিছু ঠিক হয়ে যাচ্ছে, আর একটা কথা বলতে চাই মাতৃকালীন সময় আমি যেভাবে ট্রোল হয়েছিলাম নেটিজেনদের থেকে অসম্ভব মানসিক জোর না থাকলে হয়তো সেই সময় টিকে থাকতে পারতাম না।” সবার শেষে নুসরাত বলেন যে, “এটি আমার জীবন, আমি বেছে নিয়েছি, আমি সিদ্ধান্ত নেব আমি কি করবো।” অভিনেত্রী নুসরাত জাহান বরাবরই নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে চর্চায় থাকেন। যদিও সেসব কোন কিছুই তাঁর জীবনে কোন প্রভাব ফেলে না, এবারে সেই সমস্ত কথা নিয়ে খুল্লামখুল্লা আলোচনা করলেন নিজের রেডিও শো তে।

Back to top button