বলিউড

বাংলার মেয়ে দেবস্মিতার কন্ঠে গান শুনে মুগ্ধ বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা বরুণ ধাওয়ান, দেবস্মিতা সমস্ত ঋণ শোধ করে দেওয়ার প্রতিজ্ঞা করলেন তিনি

বর্তমানে হিন্দি টেলিভিশনের জগতের অন্যতম জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো হল ইন্ডিয়ান আইডল। এটি ইন্ডিয়ান আইডলের ১৩তম সিজন। এই মঞ্চের মাধ্যমে কত গায়ক গায়িকা নিজেদের পরিচিতি গড়ে তুলেছেন তা গুনে শেষ করা যাবে না। প্রতিটি সিজনে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উঠে আসে ট্যালেন্টেড সমস্ত প্রতিযোগিরা।

যারা নিজেদের সুরেলা কণ্ঠের মাধ্যমে মুগ্ধ করে বিচারকদের। প্রতি সিজনের মতো এই সিজনেও বাংলা থেকে এসেছে এক ঝাঁক প্রতিযোগী। যারা প্রতিদিনই নিজেদের গানের মাধ্যমে দর্শকদের অবাক করে দিচ্ছেন। এছাড়াও প্রতি সপ্তাহতেই ইন্ডিয়ান আইডলের মঞ্চে বিশেষ অতিথিরা উপস্থিত থাকেন।

গত সপ্তাহ তে ইন্ডিয়ান আইডলের মধ্যে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বলিউডের দুই জনপ্রিয় অভিনেতা অভিনেত্রী বরুণ ধাওয়ান এবং কৃতি শান্যন। দুজনেই তাদের আগামী ছবি ভেরিয়ার প্রচারের জন্য ইন্ডিয়ান আইডল মঞ্চে এসেছিলেন।

ঐদিন ইন্ডিয়ান আইডলের মঞ্চে ছিল মায়েদের জন্য স্পেশাল এপিসোড। আর প্রত্যেকের কন্ঠে গান শুনে মুগ্ধ হয়েছেন বিচারকেরা এবং তাদের মুখে তাদের মায়েদের যুদ্ধের কথা শুনে ছল ছল করে উঠেছে প্রত্যেকের চোখ। আর সমস্ত প্রতিযোগীর মধ্যে থেকে বাংলার মেয়ে দেবস্মিতা রায়ের গল্প আকর্ষণ করেছে সবাইকে।

‘থ্যাঙ্ক ইউ মা’ স্পেশ্যাল এপিসোডে বঙ্গ তনয়া দেবস্মিতা ‘তু কিতনি আচ্ছি হ্যায়’ গানটি গেয়েছিলেন। আর দেবস্মিতার গলায় ঐদিন গান শুনে প্রত্যেকেরই চোখ ছল ছল করে উঠেছে। বরুণ ধাওয়ান দেবস্মিতার গানের শেষে নিজে জানান যে তিনি দেবস্মিতার গানের অনেক বড় ভক্ত।

দেবস্মিতা জানান তার আজ এই জায়গায় দাঁড়িয়ে থাকার পেছনে তার মায়ের কতটা বড় অবদান রয়েছে। তার মায়ের অনেকদিন ধরে ইচ্ছে ছিল একটা ওয়াশিং মেশিন কেনার। অবশেষে দেবস্মিতা নিজের উপার্জনের টাকায় মায়ের সেই ইচ্ছে পূরণ করতে সফল হয়েছে। ইএমআই তে মায়ের জন্য ওয়াশিং মেশিন কিনে দিয়েছে দেবস্মিতা।

দেবস্মিতার গান শেষ হওয়ার পর বরুণ তাঁকে বলেন, ‘আমি যখন জানতে পেরেছিলাম যে তুমি তোমার মায়ের জন্য ওয়াশিং মেশিন কিনতে চাও, তখন আমি নিজেই ঠিক করে ফেলেছিলাম যে ওটা তোমায় উপহার করব। কিন্তু এখানে আসার পর জানতে পারি তুমি নিজেই সেটা কিনে ফেলেছো।

তাই না?’ জবাবে মাথা নেড়ে সম্মতি জানান দেবস্মিতা। এরপরে বরুণ জানান ‘তুমি ওয়াশিং মেশিনটা ইএমআইতে কিনেছো আমি জেনেছি। তোমায় ইএমআই নিয়ে আর কিছু ভাবতে হবে না। আমি ওটা দেখে নেব। তোমার যদি আর কিছু লাগে আমায় বলো। ড্রায়ার লাগলে বলো আমি সেটারও ব্যবস্থা করে দেব’। বলিউডের এত বড় একজন তারকার এত সুন্দর মানবিকতা দেখে প্রত্যেকেই মুগ্ধ হয়েছে।

Back to top button