বলিউড

অক্ষয় কুমারের মতো মানুষের শরীরের ক্ষতি করা টাকা নেবেন না! তামাক সংস্থার দেওয়া কোটি কোটি টাকার প্রস্তাব একবারে প্রত্যাখ্যান করে দিলেন সুপারস্টার যশ

বর্তমানে সারাবিশ্বে একটা ছবি নিয়ে মাতামাতি চলছে সেটা হল কেজিএফ চ্যাপটার 2 ছবি। দক্ষিণ ভারতীয় ছবি বর্তমানে সকলের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এই ছবি কোটি কোটি টাকার ব্যবসা করেছে ইতিমধ্যেই বক্সঅফিসে। ছবিটি মূলত কন্নড় ইন্ডাস্ট্রি হলেও তামিল, তেলেগু, হিন্দি সব ভাষাতেই এই ছবি মুক্তি পেয়েছে এবং যার কারণে ব্যবসা দ্বিগুণ হয়েছে। বর্তমানে এই ছবির সুপারস্টার যশ সোশ্যাল মিডিয়ার সেনশন। যশের KGF-2 এর হিন্দি সংস্করণ গত বুধবার পর্যন্ত আয় করেছে ৩৪৩.১৩ কোটি টাকা। অর্থাৎ KGF 2 ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’, ‘পিকে’ এবং ‘সঞ্জু’-এর মতো ছবিকে পেছনে হিন্দি ছবির ইতিহাসে আয়ের নিরিখে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে।

সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে এই ছবির হাত ধরে সুপারস্টার যশ এর জীবনে কতটা সাফল্য এসেছে। তার জনপ্রিয়তা কতটা উপরে পৌঁছে গিয়েছে। আর যশের এই জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়ে কিছু তামাক জাতীয় সংস্থা তাদের বিজ্ঞাপনের জন্য অফার করেছিল সুপারস্টার যশ কে। কিন্তু কোটি কোটি টাকার অফার পাওয়া সত্ত্বেও যশ সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন। যশের ম্যানেজমেন্ট সংস্থার হেড অর্জুন ব্যানার্জি একটি সংবাদ মাধ্যমে লেখেন “পান মসলা এবং এই জাতীয় পণ্যগুলি মানুষের স্বাস্থ্যের উপর অত্যন্ত ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে, এবং পরবর্তীতে তা অত্যন্ত ভয়ংকর প্রভাব ফেলতে পারে।” আর এতেই পরিচয় পাওয়া যায় যশের উদার মনের। তিনি কতটা সচেতন মানুষের স্বাস্থ্যের প্রতি সেটাই বোঝা যাচ্ছে।

এদিকে বলিউডের খিলাড়ি অক্ষয় কুমার পান মশলা সংস্থার হয়ে একটি বিজ্ঞাপন করতে গিয়ে ক্ষোভের মুখে পড়েছেন দর্শকদের। দর্শকেরা পান মশলা বিজ্ঞাপনে অক্ষয় কুমার কে দেখে নানান ধরনের সমালোচনা, কটুক্তি করেছে। আসলে অক্ষয় কুমার কখনোই এই ধরনের স্বাস্থ্যহানিকর সংস্থার সঙ্গে থাকেন না। তিনি সবসময়ই স্বাস্থ্যসচেতন। গুটকা পান মশলা জাতীয় সংস্থা বিজ্ঞাপনের থেকে তিনি আলাদাই থাকতেন। তাই দর্শকরা তাকে এই বিজ্ঞাপনে মেনে নিতে পারেনি। পরে অবশ্য অক্ষয় কুমার নিজের ভুল বুঝতে পেরে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন দর্শকদের থেকে।

কিন্তু সম্প্রতি আবারও বিমল এলাইচি র বিজ্ঞাপনে দেখা গিয়েছে অক্ষয় কুমারকে। সেই দেখে রাগে ক্ষোভে ফেটে পড়ে নেটিজেনরা। তারা প্রত্যেকেই মনে করিয়ে দেয় অক্ষয় কুমারের পূর্বে দেওয়া কথা। আর এরপর অক্ষয় কুমার নিজের নেটিজেনদের কাছ থেকে ক্ষমা চেয়ে নেন।

Back to top button