বলিউড

মোটেই আ;ত্ম;হ;ত্যা নয়, বরং খুন করা হয়েছিল সুশান্ত সিং রাজপুতকে! মৃত্যুর দু’বছর পর বিষ্ফোরক দাবি ময়না তদন্তকারী চিকিৎসকের, কার অঙ্গুলি হেলনে এতদিন খবর প্রকাশ্যে আসেনি? লাশ কাটা ঘরে লুকিয়ে আর কোন তথ্য?

বলিউডের(Bollywood) অন্যতম অদ্ভুত বা রহস্য মৃত্যুর মধ্যে অন্যতম সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput)মৃত্যু। শুধু তাই নয় তার প্রাক্তন সহকারী দিশা সালিয়ানের(Disha Saliyan) মৃত্যুকে নিয়েও কম জল ঘোলা হয়নি। যদিও পরবর্তীকালে জানা যায় ১৪ তোলার একটি বিল্ডিং থেকে তাকে ছুঁড়ে নিচে ফেলে হত্যা করা হয়েছিল। শুধু তাই নয় তার গোপনাঙ্গে ছিল আঘাত। দিশার মৃত্যুর ঠিক ছদিন পর আকস্মিকভাবে মারা যায় সুশান্ত সিং রাজপুত। তবে প্রথমে আত্মহত্যা বলে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করলেও সোমবার সামনে এসেছেন নয়া এক তথ্য।

আত্মহত্যা নয়, খুন করা হয়েছিল সুশান্ত সিং রাজপুতকে। এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এনেছেন অভিনেতার ময়না(Autopsy Report) তদন্তে অংশগ্রহণকারী রূপকুমার শাহ(Roopkumar Shah)। সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানিয়েছেন যে অভিযোগ এতদিন বারবার সুশান্তের দিদি, তার বাবা এবং কাছের মানুষেরা জানিয়েছিলেন সেটাই সত্যি। এমনকি তার আরো দাবি সঠিক পদ্ধতি মেনে সুশান্ত সিং রাজপুতের ময়না তদন্ত নাকি হয়নি! শুধুমাত্র কয়েকটি ছবি তুলেই তা প্রশাসনের হাতে তুলে দেওয়া হয় লাশ।

খবর অনুযায়ী রূপ কুমারের এই দাবি যদি সত্যি হয় তাহলে বলিউডের অনেক মাথা বেরিয়ে আসবে। রূপকুমার এদিন জানিয়েছেন সুশান্তের সঙ্গে আরও চারটি দেহ সেদিন কুপার হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য এসেছিল। তাদের শুধু জানানো হয়েছিল এর মধ্যে একটি দেহ ভিআইপি। তবে লাশ কাটা ঘরে সুশান্তের শরীর দেখেই বুঝে গিয়েছিলেন এটি খুন। কারণ গলায় শরীরে এবং ঘাড়ের পেছনে বেশ কিছু আঘাতের চিহ্ন ছিল।

সাধারণত ময়না তদন্তে নিয়ম অনুযায়ী প্রত্যেকটি লাশ কাঁটার সময় সেগুলির ভিডিও করা হয়। তবে সুশান্তের ক্ষেত্রে ভিডিও করার পুরোপুরি বারণ ছিল। শুধুমাত্র কয়েকটি নির্দিষ্ট ছবি তুলে সেগুলি তুলে দেওয়া হয়েছিল। তিনি অনুরোধ জানিয়েছিলেন ঊর্ধ্বতনকে। প্রিয়ারটা শুধু তাকে কয়েকটি ছবি তুলে পুলিশের হাতে লাশ তুলে দেওয়া নির্দেশ দিয়েছিলেন।

Back to top button