বলিউড

দর্শকেরা অশিক্ষিতই ভালো ছিল! এখন মানুষ বড় বেশি প্রতিক্রিয়াশীল, বর্তমান দর্শকদের প্রতি বিরক্ত হানি সিং, পাঠান বয়কট বিতর্কে ক্ষোভ উগরে দিলেন গায়ক

আর মাত্র কয়েকটা দিনের অপেক্ষা। তারপরেই বড় পর্দায় আসতে চলেছেন বলিউড বাদশা শাহরুখ খান(Shahrukh Khan)। দীর্ঘ চার বছরের অবসর কাটিয়ে অবশেষে তিনি ফিরছেন বড় পর্দায়। যে কারণে তার অনুরাগীরা আর অপেক্ষা করতে পারছেন না। জানুয়ারি মাসেই মুক্তি পাবে তার দীর্ঘ প্রতীক্ষিত ছবি পাঠান(Pathan)। তবে ইতিমধ্যে ছবিকে নিয়ে বয়কটের ডাকে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া। প্রসঙ্গ তার ছবির প্রথম গান ‘বেশরম রং’।

শাহরুখ-দীপিকা(Shahrukh-Deepika) অভিনীত এই গানের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠেছে। কেউ বলেছেন এটি একটি অশ্লীল গান। আবার কেউ কেউ গেরুয়া বিকিনি পরাকে নিয়ে হিন্দু ধর্মের অপমান করছেন এমন দাবি তুলেছেন। মধ্যপ্রদেশ থেকে অযোধ্যা সহ বেশ কিছু রাজ্যে ভালোভাবে চোখে পড়েছে এই বিতর্কের আঁচ। সম্প্রতি পরমহংস আচার্য থমকে গিয়েছেন শাহরুখকে দেখতে পেলেই তাকে জ্যান্ত পুড়িয়ে মারার। অবশেষে এই ব্যাপারে মুখ খুললেন বলিউডের জনপ্রিয় র‍্যাপার হানি সিং।

দেশ যখন পাঠান বিতর্কে উত্তাল তখন বেশ কিছু বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন হানি সিং(Honey Singh)। লুঙ্গি ড্যান্সের গায়ক বলেছেন আগেও মানুষের মত প্রকাশ করা স্বাধীনতা ছিল। হয়তো মানুষ এত শিক্ষিত ছিল না কিন্তু তারা বিবেকবান ছিলেন। তারা নিজেরা বুদ্ধি দিয়ে বিচার করতেন কোনটি বিনোদন কোনটি নয়।

দর্শকদের সহনশীলতার উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেছেন এ আর রহমানের ‘রুকমনি রুকমনি’ গানটি। তার কথা অনুযায়ী রহমান স্যারের রুকমনি রুকমনি শাদি কে বাদ কেয়া কেয়া হুয়া গানটি মানুষ মজার ছলে মেনে নিয়েছিলেন তখন। আমরাও এসব গান শুনে বড় হয়েছি। আর এখন এই ধরনের হালকা গোছের গান বানালে মানুষ প্রতিবাদ শুরু করবে। এখনকার মানুষের এত বেশি প্রতিক্রিয়া শীল হয়ে ওঠার কোন মানে বুঝি না। তাহলে বিনোদন মানেটা কি?

উল্লেখ্য এর আগেও চেন্নাই এক্সপ্রেস ছবিতে শাহরুখ(Shahrukh Khan) এবং দীপিকার(Deepika Padukone) সঙ্গে কাজ করেছেন তিনি। সেখানে জনপ্রিয় লুঙ্গি ড্যান্স গানটি গিয়েছিলেন হানি সিং(Honey Singh)। পুরনো হলেও বর্তমানেও দারুণ জনপ্রিয় এই গান।

প্রসঙ্গত হানি সিং আরো বলেন দর্শকরা সেই সময় অনেক বিচক্ষণ ছিলেন। শায়েরির মর্ম বুঝতে পারতেন। এর মধ্যে নোংরা কিছু দেখতেন না। এখন যদি চোলিকে পিছে কেয়া হ্যার মত গান বানানো হয় তাহলে তার কপালে দুঃখ আছে।

Back to top button