বলিউড

হাতে জাতীয় পতাকা নিয়ে বিশ্ব সুন্দরীর সঙ্গে ছবি, ঊর্বশী এবং হারনাজের কথোপকথনের ভিডিও ভাইরাল

দীর্ঘ ২১ বছর পর আবার আমাদের দেশ ভারতবর্ষ থেকে উঠে এলো বিশ্বসুন্দরী। পাঞ্জাবের হরনাজ কৌর সান্ধুর হাত ধরে ভারতবর্ষ আবার একবার খুঁজে পেল বিশ্ব সুন্দরীর খেতাব। মাত্র ২১ বছর বয়সী এই পাঞ্জাব বাসিন্দা দেশের মুখ উজ্জ্বল করতে সাহায্য করেছে। হারনাজের এই সাফল্য উদযাপন করছে গোটা দেশ। তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছে সেলিব্রিটি থেকে আমজনতার সকলেই। সারাদেশে এখন তাকে নিয়ে মাতামাতি। চারিদিকে বইছে খুশির বন্যা।

স্বভাবতই তাকে নিয়ে গোটা দেশে এখন মাতামাতি চলছে তার জন্য গোটা দেশ এখন গর্বিত। একজন সাধারন পাঞ্জাব বাসিন্দা থেকে বিশ্বের সবথেকে সুন্দরী নারী হয়ে ওঠার রাস্তা টা সোজা ছিল না। তার এই আনন্দের দিনে উচ্ছ্বসিত হলেন আরেক সুন্দরী অভিনেত্রী উর্বশী রাউটেলা। যিনি এবারে বিচারকের আসনে ছিলেন। ভারতের হয়ে হারনাজের জয়ের পরে ঊর্বশী চোখেও জল এসেছিল। সম্প্রতি উর্বশী এবং হারনাজের এর কথোপকথন এর একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে উর্বশীর হাতে রয়েছে দেশের জাতীয় পতাকা এবং হেসে হেসে খেলে কথা বলছেন হারনাজের সঙ্গে। দেখে মনে হচ্ছে দুজন দুজনকে বেশ কয়েক বছর ধরে চেনেন। আসলে নিজেকে ধরে রাখতে পারেনি ঊর্বশী তিনি এতটাই আপ্লুত যে নিজের আবেগকে তিনি ধরে রাখতে পারেননি। উর্বশীর ইনস্টাগ্রম অ্যাকাউন্টে এই ভিডিওটি আপলোড করেছেন এর আগেও সংক্রান্ত বিভিন্ন ভিডিও আমরা উর্বশীকে সোশ্যাল মিডিয়া আপলোড করতে দেখতে পেয়েছি। তবে এবারের বিজয়ী ঘোষণা করার পর যখন তাকে মুকুট পরানো হচ্ছিল তখন উর্বশীকে কাঁদতে দেখা যায় আসলে নিজের আবেগ ধরে রাখতে পারেননি। বিশ্ব সুন্দরীর খেতাব জেতার উর্বশীর সঙ্গে পোজ দিয়ে ছবিও তোলেন হারনাজ।

অন্যদিকে উর্বশীকে বিচারকের আসনে দেখে বেজায় খুশি হয়েছেন হারনাজ। তিনি রীতিমতো বিশ্বাস করতে পারছিল না যে তিনি উর্বশী রাউটেলার পাশে দাঁড়িয়ে রয়েছেন এবং একসঙ্গে ছবি তুলছেন। তিনি জানান উর্বশীকে তিনি লক্ষ্য করেন, তিনি দেখেন এবং মনে মনে ভাবেন ঊর্বশী কতটা সুন্দরী। দীর্ঘ ২১ বছর পর ভারত পেয়েছে নিজের বিশ্ব সুন্দরী কে। এর আগে লারা দত্ত এই মুকুট জয় করেছিলেন।

Back to top button