বলিউড

কালো ছেলের ফর্সা বউ দেখে ভয়ঙ্কর ট্রোল নেটিজেনদের! সেই ছেলের পরিচয় জেনে মাথায় হাত পরল সবার

বর্তমান সময়ে আমরা অনেকটা আধুনিক হয়েছি। সময় পরিবর্তন হয়েছে এসেছে অনেক নতুন নতুন আধুনিক জিনিসপত্র। মানুষ নিজেদের পুরনো ধ্যান-ধারণা দূরে সরিয়ে নতুন কে আপন করে নিতে শিখেছে। স্বাধীনতার ৭৫ বছর পেরিয়ে গেলেও মানুষের মনে বেশ কিছু পুরনো ধ্যান-ধারণা এখনও রয়ে গিয়েছে যেগুলি সত্যি কতটা নিম্নমানের চিন্তাভাবনার পরিচয় দেয় আমরা প্রত্যেকেই জানি। এই সমাজে এসে এখনো মানুষ ধর্ম, জাতি, বর্ণ ইত্যাদিতে বিশ্বাস করে সবকিছুর মধ্যে ভেদাভেদ খোঁজে।

অনেকে নিজেদের গায়ের রং নিয়ে গর্ববোধ করেন। এমনকি দেশে আইন চালু হয়ে গিয়েছে বর্ণবৈষম্য একটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে কিন্তু সে সবের তোয়াক্কা করেনা মানুষজন। আমরা ভুলে যাই একজন ভালো মানুষের চিহ্ন কখনোই তার গায়ের রং বর্ণ গঠন হতে পারে না। তার কাজেই তার আসল পরিচয় পাওয়া যায়। আর এইসব পর থেকেই আমরা অজান্তেই নিজেদেরকেই অপমান করে ফেলি।

সম্প্রতি কয়েকদিন আগের ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি দম্পতি ছবি বেশ ভাইরাল হয়েছিল। সারা সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে তাদের ছবি ঘুরপাক খাচ্ছিল। নেটিজেনরা অসংখ্য ট্রল এবং সমালোচনা করেছিল তাদের নিয়ে। একজন সুন্দরী ফর্সা মেয়ে কিনা একজন কালো কুচকুচে ছেলেকে বিয়ে করল। কিংবা ওই কালো কুৎসিত ছেলেটাই বা এত সুন্দর ফর্সা মেয়ে পেলো কিভাবে। কিন্তু মানুষজন ঐ ব্যক্তির আসল পরিচয় না জেনে তাকে ট্রোল এবং সমালোচনার মুখে ঠেলে দিয়েছিল। আসলে মানুষ খুব তাড়াতাড়ি অন্য আরেকজনকে বিচার করে ফেলে তার সমস্ত কিছু না জেনেই তার পরিচয় না জেনে তাকে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে দেয়।

আসলেই ছবিতে ওই ব্যক্তি অন্য আর কেউ নয় আটলী কুমার। বর্তমান সময়ের দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সবথেকে বড় চিত্রনাট্য লেখক এবং পরিচালক। আর তার স্ত্রী হলেন দক্ষিণী ছবির অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী কৃষ্ণা প্রিয়া। দীর্ঘ ৯ বছর প্রেমের সম্পর্কে থাকার পর অবশেষে ২০১৪ সালের ৯ই নভেম্বর সাত পাকে বাঁধা পড়বে দুজনে। বর্তমানে তিনি শাহরুখের আসন্ন ছবি ‘Jawan’ এর পরিচালনা করছেন। শাহরুখ খানের এই ছবি আগামী বছরই মুক্তি পাবে।

Back to top button