বলিউড

বাস্তবেই নিজের মা বাবার নামে মাদ্রাজ হাইকোর্টে মামলা দায়ের করলেন দক্ষিণী অভিনেতা থালাপতি বিজয়, উঠে এলো চাঞ্চল্যকর খবর

বর্তমানে দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির সিনেমা গুলিও বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করছে। এই দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির জনপ্রিয় অভিনেতা হলেন থালাপতি বিজয়। বর্তমানে দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে তার জনপ্রিয়তা এতটাই বেড়ে গিয়েছে যে অনেকেই মনে করেন কিংবদন্তি অভিনেতা রজনীকান্তের পরে তিনি দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির একমাত্র সুপারস্টার।

থালাপতি আসল নাম হল জোসেফ বিজয় চন্দ্রশেখর, তবে ভক্তরা তাকে থালাপতি বিজয় নামেই চেনে। এখনো পর্যন্ত যে ক’টি সিনেমায় তিনি অভিনয় করেছেন সেই সব কটি দারুণভাবে হিট করেছে।

বড় পর্দায় তার ছবি মানে ব্লকবাস্টার হিট, এই কারণেই যেকোনো পরিচালক-প্রযোজক কেউই তার পেছনে টাকা খরচ করতে দুবার ভাবেন না। জানা যায় দক্ষিণী সিনেমার সুপারস্টার দের মধ্যে তিনি অন্যতম একজন যার পারিশ্রমিক প্রতি সিনেমা ১০০ কোটি টাকা। দর্শকদের কাছে তার স্টাইল, কথা বলার ভঙ্গি সবকিছুই বেশ জনপ্রিয়। তার মহিলা ভক্তের সংখ্যা অগনিত তাই তার সিনেমা রিলিজ হওয়ার আগেই সকলের মধ্যে একটি ক্রেজ লক্ষ করা যায়।

জানা যায় তিনি যখন ইন্ডাস্ট্রিতে এসেছিলেন তখন রজনীকান্তের হাত ধরে একটি শিশু চরিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৮৫ সালে ‘নান সিবাপু মনিথন’ নামক একটি ছবিতে রজনীকান্তের সঙ্গে শিশু চরিত্রে অভিনয় করেন বিজয়। মাত্র ১৮ বছর বয়সে ইন্ডাস্ট্রিতে এসেছিল বিজয়।

এই অভিনেতাকে নিয়ে মাঝেমধ্যে বিভিন্ন গসিপ তৈরি হয়, মাঝে মধ্যে তিনি খবরের শিরোনামে থাকেন। সম্প্রতি একটি ঘটনার মাধ্যমে তিনি খবরের শিরোনামে উঠে এসেছেন। সম্প্রতি জানা গেছে তিনি নিজের বাবা-মার নামে তিনি মাদ্রাজ হাইকোর্টে মামলা করেছেন।

তবে শুধু নিজের বাবা-মার সঙ্গে আরও ১১ জনের নামে মামলা করেন তিনি। বিজয়ের বাবা কিছুদিন আগে একটি রাজনৈতিক দল গঠন করেন যার নাম ‘বিজয় মক্কল ইয়ক্কম’। জানা গিয়েছে এই পার্টির জেনারেল সেক্রেটারি হিসেবে বিজয়ের বাবার নাম এস এ চন্দ্রশেখর এবং মা শোভা চন্দ্রশেখর এর নাম রয়েছে।

উল্লেখ্য বিজয় কিছুদিন আগেই তার ভক্তদের উদ্দেশ্যে জানিয়েছেন এই পার্টি সঙ্গে তার কোনো রকম কোনো যোগসূত্র নেই। তার নাম দেখে পার্টিতে যেন কেউ যোগ না দেয় এমনকি এই পার্টি সংক্রান্ত কোন খবর যদি তার ফ্যান পেজ থেকে পোস্ট করা হয় তাহলে তিনি তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করবেন।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!
Back to top button