বলিউড

‘এই মঞ্চে কোনদিনই মেয়েদের জয় হবে না’, ইন্ডিয়ান আইডলের ট্রফি পবনদ্বীপের হাতে ওঠায় বেজায় চটেছেন নারীবাদীরা

গতকাল ১৫ ই আগস্ট ছিল ইন্ডিয়ান আইডলের গ্র্যান্ড ফিনালে। টানা আট মাস জার্নির পর অবশেষে শেষ হলো এই রিয়েলিটি শো। টানা ১২ ঘণ্টা ধরে অনুষ্ঠান চলার পর তারপরে বিচারকরা নিজেদের সিদ্ধান্তে এসেছেন। তবে ইতিমধ্যেই বিচারকের নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে শুরু হয়ে গেছে নেটদুনিয়ায় শোরগোল। ‘মেয়েদের জয় হবে না’ এমনই মন্তব্য করতে দেখা গেল একদল ফেমিনিস্টদের।

গ্র্যান্ড ফিনালের দিন সমস্ত প্রতিযোগিতায় নিজেদের বেস্ট পারফরমেন্স দেয়ার চেষ্টা করেছেন। শেষ পর্যন্ত একদম ৬ জন প্রতিযোগী টিকে থাকতে পেরেছিল। এই ছয় জন প্রতিযোগী হলেন পবন দ্বীপ রঞ্জন, অরুনিতা কাঞ্জিলাল, সায়লী কেম্বেলে, সম্মুখ প্রিয়া, নীহাল তাউরা এবং মোহাম্মদ দানিশ।

দুপুর ১২ টায় শুরু হয়েছিল ইন্ডিয়ান আইডলের গ্র্যান্ড ফিনালে এবং শেষ হয়েছে রাত ১২ টায়। মেতে উঠেছিল গোটা দেশ। পবনদ্বীপ এবং অরুনিতাকে নিয়ে বেশ স্বপ্ন দেখেছিল সবাই। কিন্তু হঠাৎই যেনো সেই স্বপ্ন ভঙ্গ হয়েছে।

শেষ পর্যন্ত স্বপ্ন অধরাই থেকে গেল অরুনিতার। দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছেন অরুনিতা কাঞ্জিলাল। প্রথম স্থান অধিকার করেছেন পবনদ্বীপ। তবে বাংলার মেয়ে প্রথম না হওয়ায় অনেকেই নীরাশ হয়েছে। নীরাশ হয়েছে বনগাঁ থেকে শুরু করে সবাই। এই দিন অরুনিতা জনপ্রিয় শ্রেয়া ঘোষালের গান ঘুমর তালে মাতিয়ে রেখেছিলেন সবাইকে।

বিচারকদের এমন সিদ্ধান্তের জন্য অনেকেই মনে করছেন নারীদের ইচ্ছা করেই পিছিয়ে দেয়া হয়েছে তার উপরে অরুনিতা একজন বাংলার মেয়ে। শুধু বাংলার মানুষ নন দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ ক্ষুব্ধ হয়েছেন এই সিদ্ধান্তে। সবার বক্তব্য শুধু ছেলেরাই জয় পাবে এই মঞ্চে।

Back to top button