বলিউড

‘কলসীর মতো গড়ন’, শারীরিক গঠন নিয়ে বহু নেটিজেনদের থেকে বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য শুনতে হয়েছে অভিনেত্রী ম্রুণাল ঠাকুরকে

বরাবরই মেয়েদের শরীরের গঠন নিয়ে চর্চা চলে। আমাদের সমাজে প্রাচীনকাল থেকে শুরু করে বর্তমান আধুনিক সমাজেও মেয়েদের বিশেষত স্থূলতা নিয়ে মেয়েদের নানান ধরনের কথা শুনতে হয়। এখনো মানুষ মেয়েদেরকে নিজেদের রূপ দিয়ে বিচার করে। কোন মেয়ে অতিরিক্ত রোগা হলে তাকে সব সময় ভালো মন্দ খাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। আবার কোন মেয়ে মোটা হলে তাকে খাবার কম খেতে বলার পরামর্শ দেন অনেকে। কিন্তু কয়েকদিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখার্জি এই নিয়ে বক্তব্য রেখেছিলেন তিনি বলেছিলেন যে মোটা মেয়েরাও সুইমসুট পরতে পারে। তারাও খোলামেলা পোশাক পরতে পারে আর সম্প্রতি বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ম্রুণাল ঠাকুর এই নিয়ে বক্তব্য রাখলেন।

ম্রুণাল কে তার ক্যারিয়ারের প্রথম দিকে অনেক বার শুনতে হয়েছে তার চেহারার গঠন নিয়ে। অনেকেই তাকে রোগা হওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন বিশেষ করে তার শরীরের নিচের অংশের মেদ কমিয়ে ফেলার পরামর্শ তিনি অনেকের কাছ থেকে পেয়েছিলেন। অনেকেই অভিনেত্রীর চেহারার গঠন ন্যাশপাতি কলসি ইত্যাদির সঙ্গে তুলনা করেছিলেন। এক সময়ে এগুলো শুনতে খুব কষ্ট হতো অভিনেত্রীর। কিন্তু সেই কষ্ট থাকে আত্মবিশ্বাসী করে তোলে। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে চেহারার গঠন নিয়ে মুখ খুলেছেন অভিনেত্রী। সাক্ষাতকারে তিনি বলেছেন এই শরীরটা তার নিজের তাই কে তাকে কি বলল তাতে তার কিছুই যায় আসে না। শরীরের নিচের অংশের মেদ এত সহজে কমানো যায় না প্রথমে মুখের এবং শরীরের উপরের অংশের মেদ ঝরাতে হয় তারপরে শরীরের নিচের অংশের মেদ কমানো যা অনেক পরিশ্রম সাপেক্ষ।

তিনি মনে করেন তার মত এরকম হাজারটা মেয়ে রয়েছে পৃথিবীতে যাদের চেহারার গঠন এরকমই। তারাও ক্রপ টপ এবং হাই ওয়েষ্ট জিন্স পরতে পারে। শুধু নিজেকে নিয়ে খুশি থাকতে এবং গর্ব করতে শিখতে হয়। আমেরিকায় থাকা কালীন অভিনেত্রীকে অনেকেই ‘ভারতীয় কার্দাশিয়াঁ’ কারণ ওখানে অনেকেই এই ধরনের চেহারা পেতে প্লাস্টিক সার্জারি করেন। তাই মনে করেন তার চেহারা তার কাছে অহংকারের গর্বের। তাই এখন কারও কথাতেই তিনি কোনরকম পাত্তা দেন না। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে অভিনেত্রীর নতুন ছবি জার্সি ছবিতে শাহিদ কাপুরের বিপরীতে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে ম্রুণালকে।

Back to top button