ভাইরাল

মোটর বাইকে কুমার শানুর গান গেয়ে ঘুরে ঘুরে ঔষধ বিক্রি করেই হলেন ভাইরাল, ভুবন বাদ্যাকরের পর এবারে ভাইরাল মুর্শিদাবাদের ছেলে

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে বহুবার বহুমানুষ রাতারাতি ভাইরাল হয়ে পড়েছে। নিজের প্রতিভার মাধ্যমে নেটপাড়ার মানুষজনের কাছে তার পৌঁছে গিয়েছে খুব সহজেই। যেমন গতবছরই বীরভূম জেলার দুরাজপুর এলাকার ভুবন বাবু বাদাম বিক্রি করতে করতে গান গেয়ে হঠাৎই ভাইরাল হয়ে পড়েন গোটা দেশের মানুষের কাছে। তার গানের জনপ্রিয়তা রাতারাতি ছড়িয়ে পড়ে মানুষের মধ্যে। আর এবারে ঠিক একইভাবে ভাইরাল হলেন মুর্শিদাবাদের নবী শেখ।

মুর্শিদাবাদের খড়গ্রাম ব্লকের অন্তর্গত মহম্মদপুর গ্রামের বাসিন্দা নবী শেখ। বাড়িতে আর্থিক অবস্থা ভালো নয়, তাই জন্যই পড়াশুনা করা হয়নি বেশিদূর। সপ্তম শ্রেণী অবধি পড়াশুনা করতে পেরেছেন। এরপরই সংসারের হাল ধরতে রাজমিস্ত্রির কাজ শুরু করেন। এর পাশাপাশি আরো অনেক কাজ করতেন। বর্তমানে মোটর বাইকে ঘুরে ঘুরে আয়ুর্বেদিক ঔষধ বিক্রি করেন। বাকিদের থেকে নবী শেখ এর ওষুধ বিক্রি করার পদ্ধতি একটু আলাদা। নবী মোটর বাইকে ওষুধ বিক্রি করার পাশাপাশি কুমার শানু, বাপ্পি লাহিড়ীর গান গেয়ে শোনান। ছোটো থেকেই গানের সখ ছিল তাই এভাবেই ওষুধ বিক্রির পথ বেছে নিয়েছেন তিনি।

তিনি যখন তার মোটর বাইক নিয়ে আয়ুর্বেদিক ওষুধ গ্রামে গ্রামে বিক্রি করতে যান সেই সময় তার মোটর বাইকে ওষুধ থাকার পাশাপাশি থাকে একটি মিউজিক সিস্টেম। সেই মিউজিক সিস্টেমের তালেই মাইক নিয়ে খালি গলায় গান গেয়ে শোনান সকল কে। কখনো তিনি ‘চিরদিনই তুমি যে আমার’ গাইছেন, আবার কখনও, ‘দিল কা আলম ম্যায় ক্যা বাতাউ তুঝে’। দীর্ঘ কয়েক মাস ধরেই নবী শেখ এইভাবে গ্রামে গ্রামে ওষুধ বিক্রি করার পাশাপাশি গান গেয়ে শোনাচ্ছেন। এছাড়াও তিনি জানিয়েছেন মাঝে মাঝে বিভিন্ন গ্রামে গানের অনুষ্ঠান হয়ে থাকে সেখানেও তিনি অংশগ্রহণ করেন এবং গান গেয়ে থাকেন।

Back to top button