ভাইরাল

হিংস্র বাঘের সাথে লড়াই করে স্বামীকে বাঁচাল স্ত্রী! জোৎস্নাদেবীর জীবন সংগ্রামের কথা শুনে আঁতকে উঠলেন সঞ্চালিকা রচনা ব্যানার্জী

‘দিদি নম্বর ১’ হল জি বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় গেম রিয়্যালিটি শো। যার দর্শক সংখ্যা অসংখ্য। জি বাংলায় নানা জায়গা থেকে মানুষ আসেন তাদের নিজেদের জীবন সংগ্রামের কথা বলার জন্য। নিজেরা রোজ কিভাবে লড়াই করে বেঁচে থাকেন সেইসব গল্প বলতে আসেন দিদি নম্বর ১-এর মঞ্চে। সম্প্রতি তেমনি এক প্রতিযোগি দিদি নম্বর ১-এর মঞ্চে এসেছিলেন। তার লড়াই করে বেঁচে থাকার কথা শুনে রীতিমতো আঁতকে উঠলেন রচনা ব্যানার্জী নিজেই।

সম্প্রতি জি বাংলার অফিশিয়াল ইনস্টাগ্রাম পেজ থেকে দিদি নম্বর ১-এর একটি প্রমো শেয়ার করা হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে জোৎস্নাদেবী নাম একজন বলছেন তার লড়াইয়ের কথা। তিনি বলেন যে, তিনি একা বাঘের সঙ্গে লড়াই করে ফিরিয়ে এনেছেন নিজের স্বামীকে।

তার কথায় হটাৎ একটি বাঘ তার স্বামীর ডান কাঁধের উপর জাঁপিয়ে পরে। আর তখন সেও বাঘের পিছন পিছন যায় ও বাঘের । বাঘের কানে আঙ্গুল ঢুকিয়ে জোর করে টেনে আনেন বাঘটিকে। তিনি বলেন “আমি মনে করেছি মরতে হলে দুজন মরবো, বাঁচতে হলে দুজন বাঁচবো।”

এই প্রমো শেয়ার হওয়ার পর থেকেই নিমেষের মধ্যে এটি ভাইরাল হয়ে যায় নেটবাসীদের মধ্যে। অনেকে জোৎস্না দেবীর কথা শুনে তাকে নিয়ে ট্রোল করেছেন। তবে এরএর প্রতিবাদ করেছেন অনেকেই। তারা বলেছেন সুন্দরবনের এমন লড়াকু মানুষদের নিয়ে এমন ট্রোল করা উচিৎ হয়নি। যে পেজ এই জোৎস্নাদেবীকে নিয়ে এমন ট্রোল করেছেন উল্টে তারাই মানুষের কাছে ছোট হয়ে গেছেন। এই প্রমো সামনে আসার পর থেকেই দর্শকরাও এটি দেখে শিহরিত হয়েছেন। এই প্রমোটি জি বাংলার অফিশিয়াল পেজ থেকে সম্প্রতি সকল দর্শকদের ও সকল দিদি নম্বর ১-এর অনুরাগীদের রীতিমতো শিহরিত করে তুলেছে।

Back to top button