Story

রটে গিয়েছিল মৃত্যুর খবর, ভিক্টর ব্যানার্জি কে নিজের বেঁচে থাকার প্রমাণ দিতে হয়েছিল একসময়

একসময় টলিউড দাপিয়ে বেড়ানো অভিনেতাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন ভিক্টর ব্যানার্জি। তার অভিনয়ের প্রশংসা ছড়িয়ে পড়েছিল চারিদিকে। তবে বর্তমানে টেলিভিশনের পর্দায় তাকে একেবারে দেখা যায়না।। টেলিভিশনের পর্দা থেকে বেশ খানিকটা দূরে সরে এসেছেন তিনি যার ফলে মানুষ তাকে ভুলতে বসেছে, তার অস্তিত্ব ভুলতে বসেছে দর্শকেরা।

২০১৯ সালের একটি পোস্ট হঠাৎ টলিপাড়ায় হুলুস্থুল কাণ্ড ফেলে দিয়েছিল। একটি পোস্ট লেখা হয়েছিল ভিক্টর ব্যানার্জি মৃত সেই নিয়ে বেশ কিছু দিন চলেছিল তারপর একদিন অবশেষে অভিনেতা নিজেই বলেছিলেন যে তিনি বেঁচে আছেন। ফেসবুকে নিজেই পোস্ট করেছিলেন ‘আই অ্যাম অ্যালাইভ। বিলিভ ইট অর নট।’ তবে সেই মানুষটি আজও সুস্থ এবং জীবিত। আজ তার অস্তিত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠলেও একসময় সত্যজিৎ রায় থেকে মৃণাল সেন, রোমান পোলান্‌স্কি, জেমস আইভরি, শ্যাম বেনেগাল, ডেভিড লিন, রোনাল্ড নিয়েম, নীতিশ রায়, রামগোপাল ভার্মার মত পরিচালকদের সঙ্গে চুটিয়ে কাজ করেছিলেন ভিক্টর ব্যানার্জি।

শুধু বাংলা নয় অসমীয়া এবং ইংরেজি ভাষাতে ও বিভিন্ন ছবিতে দিলেন এবং নায়কের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ভিক্টর ব্যানার্জি।১৯৪৬ সালের ১৫ ই অক্টোবর মালদা জেলায় জন্মগ্রহণ করেন এই প্রতিভাবান অভিনেতা। এক জমিদার বংশে জন্মগ্রহণ হয়েছিল ভিক্টর ব্যানার্জীর। তবে নিজের জীবনের অধিকাংশ একটা সময় পাহাড়ে কাটিয়ে ছিলেন তিনি। শিলংয়ের সেন্ট অ্যাডমান্ড স্কুল থেকে তার প্রাথমিক শিক্ষা শুরু সেখানেই বেশ কিছু বছর তাকে থাকতে হয়েছিল এরপরে কলকাতা সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজে ইংরেজিতে স্নাতকোত্তর নিয়ে পাশ করে তারপর যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন তিনি। নিজের মেধার জন্য স্কলারশিপ পেয়েছিলেন এই অভিনেতা।

দেশ বিদেশের নামী অনেক পরিচালকের সঙ্গে কাজ করেছেন তিনি। তবে সত্যজিৎ রায়ের ‘শতরঞ্জ কি খিলাড়ি’ তার জীবনের একটি অন্যতম মাইলফলক। সত্যজিৎ রায়ের ‘ঘরে বাইরে’ ও ‘পিকু’তেও অভিনয় করেছেন তিনি। বাংলা ‘আগুন’, ‘দেবতা’, ‘লাঠি’ ছবিগুলোতে অভিনয় করে তিনি। গত শতকের আশির দশকে তিনি কলকাতার বাংলা ছবির পাশাপাশি হিন্দি ছবিতেও অভিনয় করেছেন।

আবারো বহু বছর পর টেলিভিশনের বড় পর্দায় দেখা যাবে ভিক্টর ব্যানার্জি কে পরিচালক তথাগত ভট্টাচার্যের পরবর্তী ছবি আকরিকের হাত ধরে টলিউড ফিরছেন অভিনেতা। এই ছবিতে অভিনেতা ভিক্টর ব্যানার্জি ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের সঙ্গে কাজ করতে দেখা যাবে।

Back to top button