মৃত্যু নাকি খুন! মা-বাবার অমতে ১৮ বছরে বিয়ে করেন দিব্যা ভারতী! বিবাহবার্ষিকীর এক মাস আগেই মৃত্যু হয় অভিনেত্রীর, জানুন তার মৃত্যুর পেছনের অজানা তথ্য

আশি এবং নব্বই এর দশকে বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন ছিলেন দিব্যা ওম প্রকাশ ভারতী। যিনি তার অগণিত দর্শক কুলের মধ্যে দিব্যা ভারতী নামেই বেশি জনপ্রিয় ছিলেন। তেলেগু ইন্ডাস্ট্রি দিয়ে সিনেমা জগতে পা রাখলেও একের পর এক বলিউড হিট সিনেমা দিয়ে গড়ে তুলেছিলেন নিজের অভিনয়ের ক্যারিয়ার।

অসম্ভব প্রতিভাবান এই অভিনেত্রীর মৃত্যু হয়েছিল মাত্র ১৯ বছর বয়সে। জানা গিয়েছিল মদ্যপ অবস্থায় নিজের ফ্ল্যাটে রেলিং ধরে হাঁটতে গিয়ে পাঁচতলা থেকে পড়ে মৃত্যু হয়েছিল তার। তবে আজও তার মৃত্যুর কারণ নিয়ে রয়ে গেছে রহস্য।

মৃত্যুর ১১ মাস আগে তিনি গোপনে বিয়ে করেছিলেন বলিউডি প্রডিউসার সাজিদ নাজিদওয়ালাকে। দিব্যা এবং সাজিদ দুজনেই তাদের বিয়ের কথা লুকিয়ে রেখেছিলেন যাতে তা দিব্যার অভিনয় ক্যারিয়ারে ছাপ না ফেলে তাই।

দিব্যার মৃত্যুর পর তার পরিবারের লোক জানিয়েছিলেন একপ্রকার বাড়ির অমতেই সাজিদ কে বিয়ে করেছিলেন তিনি। বিয়ের পর লোকের চোখে ধুলো দিতে দিব্যা বাবা-মায়ের সঙ্গেই রয়ে গিয়েছিলেন। তার এই বিয়ে তার বাবা-মা কেউই মানতে পারেননি।

তার মৃত্যুর পর তার অসংখ্য অনুগামীর মধ্যে প্রশ্ন উঠে এসেছিল তার মৃত্যু স্বাভাবিক নাকি খুন। অনেকেই বলেন সাজিদ ধাক্কা দিয়ে তাকে ফ্ল্যাট থেকে ফেলে খুন করেছেন। তবে আজ পর্যন্ত কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

অনেকে আত্মহত্যার তত্ত্বও উড়িয়ে দেন না। সাজিদ কিংবা পরিবারের সঙ্গে ঝামেলার কারনেই আত্মঘাতী হয়েছিলেন অভিনেত্রী, এমনটাই মত তাদের। মাত্র ১৪ টি সিনেমা করে আজও বলিউডের অন্যতম একজন সফল অভিনেত্রী হিসেবে রয়ে গেছেন দিব্যা ভারতী।