Story

রইলো বিশ্বের মোট ১০ টি শক্তিশালী দেশের তালিকা! ভারতের স্থান দেখে থর থর করে কাঁপছে পাকিস্তান

আজকের দিনে দাঁড়িয়ে সাময়িকভাবে যেই দেশ শক্তিশালী নয় সেই দেশ যে কোন সময় পরাধীন হতে পারে। বর্তমানে আগ্রাসনের নীতি এতটাই বেড়ে গিয়েছে যে আন্তর্জাতিকভাবে প্রতিটি দেশই তাদের আধিপত্য বিস্তার করতে উঠে পড়ে লেগেছে। যে কোন দেশটি সবথেকে শক্তিশালী করতে গেলে প্রচুর পরিমাণে অর্থ খরচ করতে হয় আর যে কোন দেশের শক্তি হলো সেই দেশের সেনা বায়ু সেনা নৌ সেনা যে দেশের এই তিনটি বাহিনী শক্তিশালী এবং ক্ষমতা সম্পন্ন সেই দেশ সুরক্ষিত এবং সবথেকে শক্তিশালী। সামরিক ক্ষেত্রে দুর্বল হয়ে পড়লে একটি দেশের যে কি পরিণতি হতে পারে সেটা আমরা রাশিয়া এবং ইউক্রেনের যুদ্ধ দেখলেই বুঝতে পারছি।

প্রতিবছরই শক্তিশালী দেশগুলোর একটি তালিকা বের হয় সেরকমই 2022 সালের গণনা অনুযায়ী সবথেকে শক্তিশালী দেশ গুলি হল।

১. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র : শক্তিশালী দেশ গুলির মধ্যে সবথেকে শীর্ষস্থানে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। প্রতিরক্ষা জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র খরচ করে ৪,০৭,৪০,৫০,০০,০০,০০০ মার্কিন ডলার। এই দেশের Power Index হল ০.০৪৫৩। যে দেশে এর পাওয়ার ইনডেক্স যত কম হবে সে দেশ তত শক্তিশালী ও সুরক্ষিত। এই দেশে ৩৩,২৬,৩৯,১০২ জন বসবাস করেন। এবং যুক্তরাষ্ট্রের জনশক্তি রয়েছে ১৪,৬৩,৬১,২০৫ জন। পরিষেবার জন্য রয়েছে ১২,১৪,৭৯,৮০০ জন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মোট স্টেট সামরিক কর্মী রয়েছে ২২,৪৮,৫০০ জন। যার মধ্যে সক্রিয় সামরিক কর্মী হলো ১৪,০০,০০০ এবং রিজাভ কর্মী রয়েছেন ৪,৪৫,০০০ জন।

২. রাশিয়া : বিশ্বের সবথেকে শক্তিশালী দেশ গুলির মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে রাশিয়া। প্রতিরক্ষা খাতে রাশিয়ান খরচ করে ৪২,১২,৯০,০০,০০০ মার্কিন ডলার। Power Index হল ০.০৫০১। যেখানে ইউক্রেনের Power Index ০.৩২৬৬। ইউক্রেনের স্থান এই তালিকার ২৩ তম। যার কারণে রাশিয়া খুব সহজেই ইউক্রেনের উপর হামলা করতে পেরেছে। রাশিয়াতে মোট সক্রিয় কর্মী রয়েছেন ৩৫,৬৯,০০০ জন এবং রিজার্ভ সামরিক কর্মী রয়েছেন ২০,০০,০০০ জন।

৩. চীন : চীন হলো শক্তিশালী দেশ গুলির মধ্যে তৃতীয়। সুরক্ষার জন্য চীন মোট ৮১,৭৮,২০,০০,০০,০০০ মার্কিন ডলার খরচ করেছে। চীনের Power Index হল ০.০৫১১। চীন হলো সবথেকে জনসংখ্যা বহুল দেশ। চীনের মোট জনসংখ্যা হল ১ ,৩৯,৪০,১৫,৯৭৭ জন। যার জন্য এদের কর্মী সংখ্যা বেশি। চীনে মোট সক্রিয় কর্মী ২,১৮,৫০০০ জন এবং রিজার্ভ সামরিক কর্মী ৫,১০,০০০ জন।

৪. ভারত : চতুর্থ স্থানে রয়েছে আমাদের দেশ ভারত। আমাদের দেশ প্রতিরক্ষা খাতে খরচ করেছে ৭৩,৬৫,০০,০০,০০০ মার্কিন ডলার। ভারতের Power Index হল ০.০৯৭৯। ভারতের মোট জনসংখ্যা ১,৩২,৬০,৯৩,২৪৭ জন। যার মধ্যে সক্রিয় সামরিক কর্মী রয়েছেন ১,৪৪,৫০০০ জন এবং রিজার্ভ সামরিক কর্মী রয়েছেন ১,১৫৫,০০০ জন।

৫. জাপান : এই দেশের প্রতিরক্ষা বাজেট ৫১,৭০,০০,০০,০০০ মার্কিন ডলার। জাপানের Power Index ০.১১৯৫। জাপানের মোট জনসংখ্যা ১২,৫৫,০৭,৪৭২ জন। জাপানে মোট ২,৫০,০০০ সামরিক, ১৪,০০০ আধা সামরিক এবং রিজার্ভ সামরিক কর্মী রয়েছেন ৫৫,০০০ জন।

৬. দক্ষিণ কোরিয়া : দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা বাজেট ৪৮,০০,০০,০০,০০০ মার্কিন ডলার। এই দেশের Power Index ০.১২৬১। মোট জনসংখ্যা ৫,১৮,৩৫,১১০ জন। মোট ৬,০০,০০০ জন সামরিক, ৩,১০,০০০ জন আধাসামরিক ও রিজার্ভ সামরিক কর্মী রয়েছেন ৩,১০,০০০ জন।

৭. ফ্রান্স : এই তালিকায় ফ্রান্স রয়েছে সপ্তম স্থানে। ফ্রান্স মোট প্রতিরক্ষা খাতে খরচ করে ৭৪,৭০,০০,০০,০০০ মার্কিন ডলার। ফ্রান্সের Power Index ০.১২৮৩। দেশের মোট জনসংখ্যা ৬,৭৮,৪৮,১৫৬ জন। দেশে ২,৭০,০০০ জন সক্রিয় ১,৪৫,০০০ জন আধা সামরিক এবং রিজার্ভ সামরিক কর্মী রয়েছেন ৩৫,০০০ জন।

৮. যুক্তরাষ্ট্র : যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা খাতে মোট খরচ ৫৬,০৪,২০,০০,০০০ মার্কিন ডলার। যুক্তরাষ্ট্রের Power Index ০.১৩৮২। দেশের সক্রিয় সামরিক কর্মী ১,৯৫,০০০ ও রিজার্ভ সামরিক কর্মী রয়েছেন ৮০,০০০ জন।

৯. পাকিস্তান : প্রতিরক্ষা খাতে পাকিস্তানের মোট খরচ ১২,২৭,৫০,০০,০০০ মার্কিন ডলার। পাকিস্তানের Power Index ০.১৫৭২। পাকিস্তানের মোট জনসংখ্যা ২২,৩৫,০০,৬৩৬ জন। পাকিস্তানে ৬,৫৬,০০০ সক্রিয় এবং রিজার্ভ সামরিক কর্মী রয়েছেন ৫,৫০,০০০ জন।

১০. ব্রাজিল : ব্রাজিল প্রতিরক্ষার জন্য খরচ করে ২৯,৩০,০০,০০,০০০ মার্কিন ডলার। ব্রাজিলের Power Index হল ০.১৬৯৫। মোট জনসংখ্যা ২১,১৭,১৫,৯৭৩ জন ও ব্রাজিলে ৩,৩৪,৫০০ জন সক্রিয় ও ১৩,৪০,০০০ রিজার্ভ সামরিক কর্মী রয়েছেন।

Back to top button