“যেকোনো আসনে আমার বিরুদ্ধে ভোটে দাঁড়ান,আপনার জমানত জব্দ করে ছাড়বো৷”,পূর্বস্থলীর সভা থেকে শুভেন্দুকে প্রকাশ্য চ্যালেঞ্জ সুজাতার

সদ্য দলবদল করেছেন দুই সামনের সারির নেতা নেত্রী৷ একদিকে তৃণমূল ছেড়ে গেরুয়াশিবিরে যোগ দিয়েছেন প্রাক্তন নন্দীগ্রাম বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী৷ অন্যদিকে বিজেপি ছাড়লেন সুজাতা মণ্ডলও৷ দু’দিন আগে অবধিও যার চক্ষুশুল ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, আজ তার জয়গান গাইছেন সুজাতা৷ বৃহস্পতিবার পূর্ব বর্ধমানের কালনার পূর্বস্থলীর তৃণমূলের সভা মঞ্চ থেকে শুভেন্দু অধিকারীকে একহাত নিলেন সুজাতা মণ্ডল৷ প্রকাশ্য চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন সুজাতা৷ তিনি বলেন,”মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও যুবনেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের থেকে যদি অনুমতি পাই তাহলে ২৯৪টি আসনের মধ্যে যদি কোনও একটি আসনে আপনি দাঁড়ান,তাহলে আপনার জমানত জব্দ করে ছাড়বো৷”

এর আগে পূর্বস্থলীতে সভা করেছেন শুভেন্দু অধিকারী৷ সেখানে তোপ দেগেছিলেন তৃণমূলকে৷ সদ্য প্রাক্তন বিধায়ক বলেছিলেন,”তোলাবাজ ভাইপোর হাত থেকে বাংলাকে বাঁচাও৷ গরু পাচার হয়ে গিয়েছে,ধরাও পড়ে গিয়েছে৷ এবার যদি ক্ষমতায় আসে তাহলে কিডনি পাচার হবে৷”

তিনি গলার সুর চড়িয়ে আরও বলেছলেন,’পরিবর্তনের পরিবর্তন চাই৷”এরপর মঙ্গলবার পূর্বস্থলীয় বিশ্বরম্ভা ফুটবল ময়দানে উপস্থিত হন সুজাতা৷ সরাসরি বেঁধেন শুভেন্দুকে তারই গড়ে দাঁড়িয়ে৷ তিনি বলেন,”যে কোনও আসনে আমার বিরুদ্ধে ভোটে দাঁড়ান৷ আপনার জমানত জব্দ করে ছাড়বো৷’

প্রসঙ্গত, আজ নিজের গড় কাঁথিতে সভা করলেন শুভেন্দু অধিকারী৷ তার আক্রমণের নিশানায় ছিল মমতা ব্যানার্জী৷ মুখ্যমন্ত্রীকে একহাত নিয়ে বলেন,”গোপীবল্লভপুরের দিলীপ ঘোষ আর নন্দীগ্রামের শুভেন্দু দুজনে হাত মিলিয়েছি৷ লালমাটি আর জঙ্গলমহলের মাটি হাত মিলিয়েছি,যেতে তোমাকে হবেই৷” এদিনের সভা থেকে প্রায় রণহুঙ্কার শোনা গেল শুভেন্দুর কন্ঠে! আত্মবিশ্বাসী শুভেন্দু বলেন,”পদ্ম ফুটিয়ে তবে আমি ঘুমোতে যাব৷ আমি আর দিলীপ ঘোষ জঙ্গলমহলে ৩৫টা আসন জেতাব৷”