টলিউড

‘তাতে কি হয়েছে আমি বলছি “বউদি” হয়েছে খুশী’! ইন্ডাস্ট্রিতে কেউ এখনও সাহস করে আমায় বৌদি বলতে পারে না বলায় শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় কে নেটদুনিয়ায় তুমুল কটাক্ষ নেটিজেনদের

তিনি ‘পরিণীতা’, আবার তিনি রাজ চক্রবর্তীর ঘরনী, তিনিই আবার ইউভানের মা। হ্যাঁ ঠিক ধরেছেন কথা হচ্ছে ইন্ডাস্ট্রির গ্ল্যামার কুইন শুভশ্রী গাঙ্গুলীর ব্যাপারে। সম্প্রতি রাজ চক্রবর্তী পরিচালিত ‘হাবজি গাবজি’ ছবিতে অভিনয় করার পর আগামীতে যে ছবিতে তাকে দেখা যাবে সেই ছবির নাম হলো ‘বৌদি ক্যান্টিন’। ক্যান্টিন নামের সাথে জড়িয়ে আছে খাওয়া-দাওয়া, অভিনেত্রী শুভশ্রী কতটা রান্নায় পারদর্শী এই প্রসঙ্গে একটি সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী বলেন, “রান্নায় একেবারেই পারদর্শী নই। এই ছবিটা করতে গিয়ে কাটিং-চপিং শিখতে হয়েছে। বিয়ের আগে প্রচুর রান্না করতাম কিন্তু বিয়ের পর একেবারেই সেই অভ্যাসটা চলে গিয়েছে। শাশুড়ি বা বর কেউই পছন্দ করেন না রান্নাঘরে ঢুকে সময় নষ্ট করি।”

এখানেই শেষ নয় অভিনেত্রী জানিয়েছেন ছেলের জন্মদিনে ছেলেকে পায়েস করে খাওয়ান তিনি, তবে শুধু ছেলের জন্মদিন নয় তার পরিবারের সবার জন্মদিনেই এই দায়িত্বটা তার ওপর থাকে। একসময় পরাণ যায় জ্বলিয়া রে, চ্যালেঞ্জ- ইতালি কমার্শিয়াল ছবিতে অভিনয় করার পর নারীপ্রধান ছবি বৌদি ক্যান্টিনে অভিনয় করছেন অভিনেত্রী, এই ছবি প্রসঙ্গে অভিনেত্রী বলেন,“স্বামী-সংসার ঠিক রেখে ও নিজের স্বপ্ন পূরণ ও যে কতটা দরকার এই ছবি সেই কথাই বলে।”তাই নারী শক্তি ও নারীর সম্মান ফুটে উঠেছে এই ছবিতে তাই এই ছবি বেছে নিতে তাকে ভাবতে হয়নি দুইবার।

বৌদির চরিত্রে অভিনয় করছেন সে ক্ষেত্রে টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে তার সব থেকে প্রিয় দেওরকে এই প্রশ্ন করলে অভিনেত্রী হেসে বলেন, “এই রে ইন্ডাস্ট্রিতে কেউ এখনো সাহস করে আমায় বৌদি বলতে পারেনা। তবে হ্যাঁ আমার খুব প্রিয় একজন মানুষ যিনি আমার বিয়েতে ভাসুর হিসেবে আমায় আশীর্বাদ করেছিলেন সে হচ্ছে রুডি মানে রুদ্রনীল দা(রুদ্রনীল ঘোষ)। হি ইজ মাই ফেভারিট ওয়ান।”

Back to top button