টলিউড

কেকে বিতর্কের জেরে পেটে আঘাত পড়লো রূপঙ্করের! ছবি থেকে বাদ পড়ল রূপঙ্কর বাগচীর গান, তার রেকর্ডিং করা গান গাইবেন অরিজিৎ সিং

কলকাতার নজরুল মঞ্চে বলিউড গায়ক কে কে এসে গান গাওয়ার আগের দিন রূপঙ্কর বাগচী একটি লাইভ ভিডিও করে বলেছিলেন, “Who is kk?” একইসাথে তার বক্তব্য ছিল বাঙালি শ্রোতারা মুম্বাই শিল্পীদের নিয়ে যেভাবে মাতামাতি করেন বাঙালি সংস্কৃতি নিয়ে সেইভাবে তারা ভাবেন না। রূপঙ্কর বলেছিলেন, আপনারা কে কে-কে নিয়ে যতটা উত্তেজিত, আমাদের নিয়ে আপনারা ততটা উত্তেজনা বোধ করেন না কেন বলুন তো? একইসাথে গায়কের আবেদন ছিল, বাঙালি সংস্কৃতির পাশে দাঁড়ান, বাংলা গান শুনুন। কাকতালীয়ভাবে এই ঘটনার পরের দিনই মারা যান বলিউড গায়ক কে কে। তারপর যাবতীয় জনরোষ গিয়ে পড়ে রূপঙ্করের ওপর। মানুষ কে কে- কে কেন্দ্র করে তার বক্তব্যকে নিয়ে রীতিমতো উত্তেজিত হয়ে ওঠে, তাকে বয়কট করতে শুরু করে এবং রূ‌পঙ্করের বলা একটি বক্তব্যের জন্য তাকে মারাত্মকভাবে ট্রোলিং করা হতে থাকে।

জনরোষের কারণে মিও আমোরে তাদের গাওয়া ব্র্যান্ড যে গানটি রূপঙ্করকে দিয়ে গাইয়েছিলেন সেটি তুলে নেওয়ার ভাবনা চিন্তা করছেন, এমনকি মঞ্চে শিল্পী রূপঙ্করকে গান গাওয়াতে ভয় পাচ্ছেন উদ্যোক্তারা। অনুষ্ঠান আয়োজকদের বক্তব্য, কলকাতায় এতদিন রূপঙ্করের অনুষ্ঠানের চাহিদা সব থেকে বেশি ছিলো, এখন সেই জায়গাটায় একটা প্রশ্ন চিহ্ন তৈরি হয়েছে! এখানেই শেষ নয়, এরপর ছবির গান থেকেও ব্রাত্য হয়ে গেলেন রূপঙ্কর!

‘প্রথমবারে প্রথম দেখা’ ছবিতে গান গাওয়ার কথা ছিল রূপঙ্করের, এমনকি গানের রেকর্ডিংয়ের কাজও শেষ হয়ে গিয়েছিলো, কিন্তু শোনা যাচ্ছে সম্পাদনা টেবিল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে গায়ককে। এমনকি অন্য কাউকে দিয়ে সেই একই গান রেকর্ড করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কেন এমন সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন ছবির পরিচালক? ছবির পরিচালক আকাশ মালাকার বলেন, আমাদের ছবির একটা গান আগে রূপঙ্কর দা কে দিয়ে রেকর্ড করানো হয়েছিল কিন্তু এডিট টেবিলে আমাদের মনে হয় ছবির নায়কের সঙ্গে মিলছে না। ছবির গল্প কিশোর কিশোরীদের নিয়ে, সেখানে রূপঙ্করদার গলা বয়স্ক মনে হচ্ছে! আমরা সে কারণেই ঠিক করেছি গানটা অরিজিৎ সিংহ কে দিয়ে গাওয়াবো।”

পরিচালক যাই বলুন না কেন নেটাগরিকরা অনুমান করছেন কে কে বিতর্কের কারণেই এই ছবির কাজ থেকে বাদ যাচ্ছেন রূপঙ্কর। এমনকি কলকাতার আয়োজকেরা ও রূপঙ্কর কে নিয়ে গান গাওয়াতে ভয় পাচ্ছেন এখন। কলকাতা মুম্বাইয়ের শিল্পীদের নিয়ে ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে অনুষ্ঠান করেছেন তোচন ঘোষ। এই প্রসঙ্গে নিজের আশঙ্কার কথা জানিয়ে সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন আগামী ছয় মাস রূপঙ্করকে নিয়ে অনুষ্ঠানের কথা ভাবতে পারবো কিনা জানিনা।

দমদমের একটি মঞ্চে ইতিমধ্যেই কেকে বিতর্কের পর গান গাইতে গিয়েছিলেন রূপঙ্কর। তবে সেখানে ভক্তরা তাকে গান গাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন এবং কোন রকম অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, রূপংকরের একটি মন্তব্যের কারণে তাকে যেভাবে সকলে মিলে কুরুচিকর মন্তব্য করছেন এবং আক্রমণ করছেন তা দেখে আঘাত পেয়েছেন সুরকার জয় সরকার। অন্যদিকে নচিকেতা জানিয়েছেন, রূপঙ্কর অভিমান থেকে একটা কথা বলে ফেলেছে সেটা বোঝা উচিত। টালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীলেখা‌ও কার্যত ট্রোলারদের অনুরোধ করেছেন, রূপঙ্কর দাকে নিয়ে এইভাবে ট্রোলিং করা বন্ধ করুন দয়া করে। একইসাথে সোশ্যাল মিডিয়ার উদ্দেশ্য শ্রীলেখা প্রশ্ন রেখেছেন, এরপর রূপঙ্করদার কিছু হলে ক্ষমা করতে পারবেন তো নিজেকে?

Back to top button