টলিউড

ঋত্বিকের হাতের পুতুল কি কথা শুনছে না বড়দার? এই বিষয়ে খোলামেলা উত্তর দিলেন ঋত্বিক নিজেই

সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন শখের বড়দা হয়েছেন অভিনেতা ঋত্বিক চক্রবর্তী। তার হাতের জাদুতে উঠে আসছে সমাজের নানান দিক। শুধু রাজনীতির ক্যাচকাচানি নয়, সমাজ,সিনেমা সব কিছুই থাকছে তার হাতের পুতুলের বক্তব্যে। সাম্প্রতিককালে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঋত্বিক একটি পুতুলকে নিয়ে হাজির হন। প্রথম দিন থেকেই রীতিমতো সাড়া ফেলেছে তার পুতুল। পুতুলটি কখন কি বলে উঠবে তা কেউ আগে থেকে বুঝে উঠতে পারেন না। মজার ব্যাপার এই পুতুলের মালিক ঋত্বিক নিজেও নাকি জানেন না তার পুতুল কি করবে!

সম্প্রতি এই বিষয়টি নিয়ে ঋত্বিক খোলামেলা একটি সাক্ষাৎকার দেন। ঋত্বিক চক্রবর্তী বলেন, “এটা অনেকটা টাইমপাস। ভালো লাগে, তাই করি। গুরুত্ব দেওয়ার মতো কোনো ব্যাপার নয়। কেউ কেউ বিষয়গুলো বুঝতে পারেন, আবার কেউ পারেন না। পুতুল হয়তো বোঝার মত কিছু বলে না, আবার বলতেও পারে।”

পুজোর পর গত বৃহস্পতিবার রাতে ঋত্বিক ফের তার পুতুলকে নিয়ে একটি ভিডিও প্রকাশ করেন। তাতে পুতুলকে বলতে শোনা যায়, “আমি নোবেল প্রাইজ পাইনি এটা ঠিক কথা নয়, বরঞ্চ নোবেল আমাকে পায়নি। ঠিক যেমনভাবে সবাই মনে করে আমি একটা হাতের পুতুল, আসল ব্যাপার হল আমি কিন্তু পুতুলের হাত।” এরপর ঋত্বিক পুতুলকে জিজ্ঞেস করেন, “পুতুলটা তাহলে কে?” এই প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে অন্য প্রসঙ্গে গিয়ে পুতুল বলে,”বড়দা আমি কিন্তু ডলারকে তারাইনি, তাড়িয়েছে টাকা।” এরপর অভিনেতার গালে চুমু খেয়ে বিদায় নেয় পুতুলটি।

এই বার্তালাপ থেকেই পরিষ্কার যে ঋত্বিক চক্রবর্তী পরোক্ষভাবে তুলে ধরতে চাইছেন রাজনৈতিক ও সামাজিক বিভিন্ন বিতর্কিতমূলক কিছু দিকগুলি।
ঋত্বিক বলেছেন, “শুধু রাজনীতি নয়, আমাদের চারদিকে যা কিছু ঘটছে সবকিছু নিয়েই কথা বলছে পুতুল। ও কাল কি বলবে তা কিন্তু আমি নিজেও জানিনা। আমি আর ও তো এক নই!” এরপর রোদ্দুর রায়ের গ্রেফতারি প্রসঙ্গ উঠতে ঋত্বিকের হেসে জবাব, “আমি জেলে যাব না। অত বড় কিছু করছি বলে আমার তো মনে হয় না!”

Back to top button