টলিউড

‘মা বলেছিল আমার ছেলে হিরো হবে…’, ‘দিদি নম্বর ১’এর মঞ্চে পুরনো স্মৃতি মনে করেই নিজের প্রথম ছবির অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জীর সামনে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়লেন দেব

শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে রাহুল মুখোপাধ্যায় পরিচালিত দেব-রুক্মিণী অভিনীত ছবি ‘কিশমিশ’। এই ছবির ট্রেইলার দেখার পর থেকেই ছবির মুক্তিক অপেক্ষা করে ছিলেন দেব ভক্তরা এবং সিনেমাপ্রেমীরাও। ছবি মুক্তির আগেই ছবির প্রমোশনের জন্য বিভিন্ন রিয়েলিটি শোতে হাজির হয়েছিলেন গোটা টিম। তেমনই দিদি নাম্বার ওয়ানের মঞ্চেও এসেছিল টিম কিশমিশ। সেখানেই রচনা ব্যানার্জির সামনে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়লেন দেব।

২০০৬ সালে অগ্নিশপথ ছবির হাত ধরেই অভিনয়ে আসেন দেব। তার প্রথম ছবির অভিনেত্রী ছিলেন রচনা ব্যানার্জি। সেই থেকেই অভিনেত্রীর সঙ্গে পরিচয় দেবের। আর সেই প্রথম ছবির কথা মনে করেই আবেগপ্রবণ হয়ে পড়লেন দেব। সকলের সামনে সব পুরনো স্মৃতি তুলে ধরলেন।

দেব জানালেন, তিনি বম্বেতে বড় হয়েছেন। পুনে থেকে কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশুনা করেছেন তিনি। পাস করার পরে দু’বছর এক জায়গায় অ্যাসিস্টও করেছিলেন অভিনেতা। সেখানেই তিনি বেশ কয়েকটি মিউজিক ভিডিওতেও কাজ করার সুযোগ পেয়েছিলেন। এরপরে কলকাতা থেকে একটি দল বম্বেতে শুটিং করতে গিয়েছিলেন, আর তখনই ‘অগ্নিশপথ’ ছবির কাজের সুযোগ আসে তার কাছে। কলকাতা তে আসতে শুটিং এর জন্য। এরপর তার অভিনয় তিনটি ছবি পর পর হিট করে। এরপরই দেব কলকাতাতে স্থায়ী ভাবে থাকার সিদ্ধান্ত নেন।

প্রথম দিকে প্রযোজক যেখানে থাকতে বলতো সেখানেই থাকতো দেব। এরপর বাড়ি পরিবর্তন করতে থাকেন। পরে অবশ্য নিজের বাড়ি কিনেছিলেন। দেব জানান কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার পর যখন বাবাকে তিনি তার অভিনয় করার কথা জানান তখন বাবা তার উপর খুব রেগে গেছিলেন। তবে শুরু থেকেই মা কে পাশে পেয়েছেন দেব।সবসময় মা তাকে সাপোর্ট করেছেন। তার মা বিশ্বাস করতো যে দেব একদিন ঠিক হিরো হবে। শেষ পর্যন্ত মায়ের ইচ্ছে পূরণ করতে পেরেছে দেব।

Back to top button