টলিউড

ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় ভাই দেবদীপের ওপর আক্রমণ করে প্রোডাকশন ম্যানেজার অমিত, প্রতিবাদের সুরে সোশ্যাল মিডিয়ায় গর্জে ওঠে ভাস্বর

এবারে অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় নিজের ভাই দেবদীপ চট্টোপাধ্যায়ের হয়ে মুখ খুললেন সোশ্যাল মিডিয়ার। একটি ওয়েবে কাজ করতে গিয়ে দেবদীপ প্রোডাকশন ম্যানেজার এর কাছে আক্রান্ত হন বলে দাবি ভাস্বরের।

ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় খুড়তুতো ভাই দেবদীপ চট্টোপাধ্যায়। সম্প্রতি দেবদীপ একটি ওয়েব সিরিজে নায়কের ভূমিকায় অভিনয় এর জন্য করছেন শুটিং করছেন। শুটিং এর খাতিরে তাকে বোলপুর যেতে হয়। সেখানে গিয়েই নানাভাবে নাজেহাল হতে হয় তাকে প্রোডাকশন ম্যানেজার অমিতের জন্য।

ভাস্বর জানান তার ভাই দেবদীপ নিরামিষাশী এবং পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে নিজের জন্য একটি সিঙ্গেল রুম চেয়েছিলেন। কিন্তু সিঙ্গেল রুম দেয়া হয়নি তাকে, দেওয়া হয়নি নিরাআমিষ খাবারও। শেষদিন প্রযোজকের সাহায্যে পনির এর ব্যবস্থা করা হয় তার জন্য। তবে সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় ফেরার দিন, এসি কামরার টিকিট এর নামে দেবদীপ কে দেওয়া হয় স্লিপার ক্লাসের টিকিট।

অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় সোশ্যাল মিডিয়ায় অমিতের একটি ছবি পোস্ট করে লেখেন, “চিনে রাখুন অমিতকে, আমার ভাই বোলপুরে একটি ওয়েব এর শুটিং এর জন্য গিয়েছিল। সেখানে তাকে নানাভাবে হ্যারাসমেন্ট হতে হয় এই প্রোডাকশন ম্যানেজার এর জন্য”।

সে অমিতকে বলেছিল শুধু সে নিরামিষ খায় এবং তার জন্য একটি সিঙ্গেল রুমের ব্যাবস্থা করতে কারণ দেবদীপ করোনা পরিস্থিতিতে একটু বেশি সতর্ক থাকতে চেয়েছিল। নিরামিষ খাবার তো দেওয়াই হয়নি এছাড়াও সিঙ্গেল রুম দেওয়া হয়নি দেবদীপ কে। উপরন্তু নোংরা টয়লেট বারবার পরিষ্কার করার করতে বলায় তাতেও কর্ণপাত করা হয়নি। বাধ্য হয়ে দেবদীপ একদিন স্নান বাথরুম না করে ছিল।

শেষদিন সবটা জানতে পেরে প্রযোজক তার নিজের ঘরে দেবদীপ কে থাকতে দেয়। কলকাতায় ফেরার দিন অনেকবার দেবদ্বীপ অমিত কে জিজ্ঞাসা করেছিল টিকিটের কথা। কিন্তু তখন কিছুই জানানো হয়নি তাকে, স্টেশনে এসে তাকে স্লিপার ক্লাসের টিকিট দেওয়া হয়। অমিতকে এসি ক্লাসের টিকিটের কথা জিজ্ঞাসা করতে তার উপরে চড়াও হয় অমিত, চিৎকার করে এবং গায়েও হাত তোলে বলে অভিযোগ ভাস্বরের।

দেবদীপ এর উপর চিৎকার করে অমিত বলে “যেতে না হলে এখানেই থাক”। তখন প্রতিবাদের সুরে দেবদীপ বলে ওঠে “তুমি আমায় মারবে নাকি”? পাল্টা উত্তরে অমিত বলে “মারতে পারলে তো প্রথম দিনে মেরে পুঁতে দিতাম”। সামনে দাঁড়িয়ে থাকা পুরো প্রোডাকশন টিম কোন প্রতিবাদ না জানিয়েই ট্রেনে উঠে পড়ে।

তারপরে বোলপুর স্টেশন থেকে দেবদীপ তার প্রযোজককে ফোন করেন এবং প্রযোজক তার কলকাতায় ফেরার ব্যবস্থা করে দেন। ভাস্বর লিখেছেন “আমার কথায় আমার ভাইয়ের যদি এই ধরনের অবস্থা হয় তাহলে বাকি নতুন অভিনেতাদের কি অবস্থা যাদের পেছনে কেউ নেই। অমিতের মত লোকজন এর জন্যই আজ পুরো ইন্ডাস্ট্রির নাম খারাপ হতে চলেছে। আমার প্রতিবাদ করা এই কারণে যাতে ভবিষ্যতে এধরনের কাজ আর কেউ করতে না পারে”। ভাস্বরের এই পোস্টে ইন্ডাস্ট্রির বেশ কয়েকজন কমেন্ট করেন।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!
Back to top button