জিমসুটে উন্মুক্ত বক্ষভাঁজ, শীতের সকালে উত্তাপ ছড়ালেন শ্রীলেখা

শ্রীলেখা মিত্র ,টলিউডে বেশ জনপ্রিয় একটি নাম৷ অভিনয় তো বটেই সাহসিকতার জন্যেও নেটদুনিয়ায় তার বেশ নাম ডাক৷ বয়সকে তোয়াক্কা কোনোদিনই করেননি শ্রীলেখা৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় ইদানীং বেশ সক্রিয় অভিনেত্রী৷ প্যাণ্ডেমিকে ঘরে বসে থাকেননি,গিয়েছেন নানান রাজনৈতিক কর্মসূচীতে৷ শরীরচর্চা বজায় রেখেছেন শ্রীলেখা৷ প্রায়ই কিছু “হটকে” ছবি পোস্ট করে লাইমলাইটে এসে পড়েন তিনি৷ এবারে একেবারে তাক লাগিয়ে দিলেন যেন!

আজ সকালেই নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে একটি নিজস্বী পোস্ট করেন শ্রীলেখা,জিমের সুটে ঘর্মাক্ত দেহ৷ক্যাপশনে লিখেছেন,”প্রথমেই আমার চোখে হারিয়ে যাও৷ক্লিভেজ তার নিজের মিষ্টি সময় নিতে পারে৷” এমন ক্যাপশন হয়তো একমাত্র তিনিই লিখতে পারেন৷ সেলফিতে দেখা যাচ্ছে তার উন্মুক্ত বুকের ভাঁজ,তবুও অভিনেত্রী প্রথমে তার চোখের দিকে তাকিয়ে হারিয়ে যেতে আবেদন জানাচ্ছেন,বুকের ভাঁজে নয়! কমেন্ট সেকশন ভরে যায় তাদের এহেন ক্যাপশন দক্ষতার প্রশংসায়৷ একজন আবার লেখেন,”তোমার চোখের যা গভীরতা,সেদিকে দেখলে অন্য কোনোদিকে আর চোখ যাবেই না৷”

শ্রীলেখা যে বুঝেশুনেই এমন ক্যাপশন লিখেছেন তা বলাই বাহুল্য৷ শ্রীলেখা নিজের শরীরের ওজন নিয়ে কখনও হীনমন্যতায় ভোগেননি৷ বরং তাকে দেখা যায় বেশ খোলামেলা পোশাকে বা একদম স্কিন টাইট পোশাকে ছবি শেয়ার করতে৷ আজ সকালেই ফেসবুকে নিজের ছবি দিয়ে যে ক্যাপশন লেখেন তাতেও আসলে প্রচ্ছন্নে সমাজের দৃষ্টিভঙ্গীর দিকে বিদ্রূপই ছুঁড়ে দিয়েছেন একরকমভাবে৷ ক্লিভেজ দেখা গেলেই অধিকাংশ ক্ষেত্রে অভিনেত্রীদের হতে হয় ট্রোলের শিকার! তাই মানুষের দেখার চোখ বদলাতেই এমন ক্যাপশন শ্রীলেখা লিখেছেন বলে মনে করছেন নেটিজেনদের একাংশ৷

এতে অবশ্য অনেকেই অভিনেত্রীর সাহসের প্রশংসা না করে পারেননি৷ কিছুদিন আগেই নিজের মেয়ের জন্মদিনের পার্টিতে ভাইরাল “টুম্পাসোনা” গানের সাথে কোমর দুলিয়ে নেটদুনিয়ায় বেশ শোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন৷

বাংলা ধারাবাহিক “তৃষ্ণা” দিয়ে অভিনয়জীবন শুরু করলেও করে গেছেন একের পর এক সিনেমা৷ বাসু চ্যাটার্জীর “হঠাৎ বৃষ্টি” ছবিতে অভিনয় করার পর থেকেই শ্রীলেখার জনপ্রিয়তা তুঙ্গে পৌঁছায়৷ পরে বেশ কিছু বছর মীরাক্কেল নামক একটি রিয়ালিটি শোতেও তাকে দেখা গিয়েছিল বিচারকের আসনে৷