টলিউড

নন্দনে জায়গা পেল না সত্যজিৎ রায়ের পথের পাঁচালী প্রেক্ষাপটে তৈরি ‘অপরাজিত’, হতাশ সিনেমাপ্রেমীরা

আজ ১৩ মে মুক্তি পেয়েছে অপরাজিত। বাংলার কিংবদন্তি পরিচালক সত্যজিৎ রায় কে নিয়ে মুক্তি পেয়েছে বহুল প্রতীক্ষিত এই ছবি। কিন্তু এত বড় একটি ছবি জায়গা পেলো না নন্দনে। নন্দনে দেখানো হবে না এই ছবি। এই খবর জানার পরে ক্ষুব্দ হয়ে উঠেছেন পরিচালক অনিক দত্ত। সত্যজিৎ রায়ের পথের পাঁচালী তৈরি কিছু দৃশ্য ফুটিয়ে তোলা হবে অপরাজিত ছবিতে। এই ছবিতে সত্যজিৎ রায়ের ভূমিকা করছেন অভিনেতা জীতু কামাল। এক সাক্ষাৎকারে পরিচালক অনিক জানায় যে স্ক্রীনিং হবার পর ছবি দেখে প্রশংসা করেছেন প্রত্যেকে কিন্তু তবুও এই ছবি কেন নন্দনে জায়গা পেল না তা বুঝতে পারছেন না পরিচালক।

তবে কি রাজনীতির কারণে এই ছবি নন্দনে জায়গা পেল না? কারণ এর আগে পরিচালক অনীক দত্ত বিভিন্নভাবে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলেছে যার ফলে তার আগের ছবি ভূতের ভবিষ্যৎ এর প্রদর্শনও নন্দনে আটকে গিয়েছিল।

তবে অপরাজিত নন্দনে মুক্তি না পাওয়ার পেছনে রাজনৈতিক কারণে যে রয়েছে তা পুরোপুরি ভাবে সঠিক বলতে পারছেনা অনিক দত্ত। তবে ইতিমধ্যেই পরিচালক বেশ হতাশ হয়ে পড়েছেন কারণ নন্দনে একটা বড় অংশ সিনেমা দেখতে আসে এবং প্রচুর জায়গায় গিয়ে তারা এই ছবির প্রচার করেছে। বেশিরভাগ কলেজপড়ুয়ারাই এই অপরাজিত ছবি নিয়ে উৎসাহ দেখিয়েছে। তবে নন্দনে এই ছবি প্রকাশিত না হওয়ার ফলে অনেকটাই ক্ষতি হবে বলে জানিয়েছে। কারণ বড় বড় মাল্টিপ্লেক্সে এত টাকা দিয়ে টিকিট কিনে ছবি দেখার সাধ্য অনেকেরই নেই। যার ফলে বেশীরভাগ কলেজ পড়ুয়া এবং সিনেমাপ্রেমীরা নন্দনে এসে সিনেমা দেখতে ভালবাসেন। তাই নন্দনে এই ছবি প্রদর্শিত না হওয়ার কারণে হতাশ এবং ক্ষুব্ধ হয়ে পড়েছেন অনিক।

অথচ বর্তমানে নন্দনে রমরমিয়ে চলছে কিশমিশ, মিনি এবং কলকাতার হ্যারি। কিছুদিন আগেই বাংলা ছবির পাশে দাঁড়ানোর আর্জি নিয়ে টলিউডের বিভিন্ন অভিনেতা অভিনেত্রীরা প্রচার করেছিলেন। কিন্তু অপরাজিতার বেলাতেই মুখে কুলুপ এঁটে গিয়েছে সবার। খ‍্যাতনামা পরিচালক শ‍্যাম বেনেগাল নিজে বাহবা দিয়েছেন জিতুকে। তবুও বাংলার হলে জায়গা হলো না অপরাজিত এর।

Back to top button