টলিউড

“মজা করে হলেও আসল সত্যিটা বলে ফেললে দাদাভাই” – অঙ্কুশের জীবনে ঐন্দ্রিলা নাকি শনির দশা! এই কথায় চরম কটাক্ষ নেট পাড়ায়

অভিনয় জগতের বড় পর্দার অভিনেতা-অভিনেত্রীরা হামেশাই বিভিন্ন মুখরা কন্টেন্ট দিয়ে থাকেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তাঁরা মজা করে কোন কথা বললে সেখানেও ট্রোল করার মতো বিষয়বস্তু খুঁজে পায় সাধারণ মানুষ। নিজেদের দক্ষতায় অত্যন্ত জনপ্রিয় সেলিব্রিটি হয়ে ওঠেন তাঁরা। যেহেতু অভিনয় জগতের তারকা তাঁরা সে জন্যই তাঁদের ব্যক্তিগত জীবনের নানান তথ্য নিয়ে কটাকো করতে সাধারণ মানুষের বাঁধে না। যত বড় আর যতই পছন্দের অভিনেতা হোক না কেন সোশ্যাল মিডিয়া একবার না একবার তাঁদেরকে কটাক্ষ করবেই।

টলি পাড়ার অন্যতম জনপ্রিয় একজন অভিনেতা হলেন অঙ্কুশ হাজরা। জিৎ এবং দেবের পরবর্তীকালে অঙ্কুশ এমন একজন অভিনেতা বিশেষত নায়ক রূপে যিনি ততধিক জনপ্রিয়তাই পেয়েছেন। তবে ব্যক্তিগত জীবনে অভিনেতার এক নায়িকাও রয়েছে। তিনি হলেন এক সময় টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা সেন। দীর্ঘ ১০ বছরের প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে তাঁরা। এখনো পর্যন্ত চুটিয়ে প্রেম করছেন এই দুই অভিনেতা – অভিনেত্রী। তবে এখনো অবধি এই জুটির বিয়ে নিয়ে কেউ কিছু বলেননি।

তাঁদের প্রেম বেশ চর্চার বিষয় হলেও বিয়ের সম্পর্কে কোন তথ্য তাঁরা দেননি দর্শককে। কিন্তু সম্প্রতি সামনে এলো অঙ্কুশ এবং ঐন্দ্রিলার পুরনো একটি ভিডিও যেখানে তাঁদের প্রেম শুরু হওয়া নিয়ে গল্প রয়েছে। আমরা সকলেই জানি ব্যক্তি জীবনে অঙ্কুশ ভিশনই হাস্যকৌতুক করতে পছন্দ করেন। এমনই হাসি ঠাট্টার মাঝে নিজেদের প্রেমের গল্প দর্শকের সামনে তুলে ধরলেন এই জুটি।

সেই ভিডিওতে সেই ভিডিওতে অভিনেতাকে বলতে শোনা যায় ২০১১ সালে তাদের প্রেম শুরুর কথা। সেখানে অভিনেতা বলেন ২০১১ সালে তার জীবনে দুর্ভাগ্যবশত এক মহিলা আসেন। দীর্ঘ ১১ বছর ধরে এই মহিলাকে সরানোর চেষ্টা করলেও সরাতে পারেন নি নাকি অভিনেতা। তখনই ঐন্দ্রিলা পাশ থেকে বলে ওঠেন যে ১১ বছর ধরে শনির দশা চলছে। এরপরেই অঙ্কু জিজ্ঞাসা করে ওঠেন কে সেই মেয়েটি? তখন পাশ থেকে ঐন্দ্রিলা বলে ওঠেন অবশ্যই আমি।

কিন্তু এসব বলে তাঁরা নিজেরাই নিজেদের মধ্যে ঠাট্টা ইয়ার্কি করছিলেন। এসব কথা যা একেবারে সত্যি নয় সবটাই মজা সেটা স্পষ্টভাবেই বোঝা গেল সেই ভিডিওতে। আদর করে প্রেমিকার কপালে চুমু দিলেন অঙ্কুশ। আবার আদরে গালো টিপে দিলেন তাঁর। কিন্তু তাঁদের ইয়ার্কি ঠাট্টা নিয়েও হলো সোশ্যাল মিডিয়াতে তুমুল ট্রোলিং। একজন বললেন মজার ছলে হলেও সত্যি কথা বলেই ফেললেন দাদাভাই। কিন্তু অনেকেই আবার তাঁদের প্রিয় জুটিকে তাঁদের সম্পর্ক নিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। দশ বছর ধরে টানা একটি সম্পর্কের মধ্যে থাকা মোটেই সহজ কাজ নয়। তাইতো তাঁদেরকে অনেক আশা ভরসা যোগিয়েছেন তাদের অনুরাগীরা সাথে জানিয়েছেন অনেকটা ভালোবাসা।

Back to top button