বলিউড

জুটছে না বাড়ির রাজকীয় খাবার! মেসের খাবার খেয়েই দিন কাটছে শাহরুখপুত্র আরিয়ান খানের

সম্প্রতি মাদক কাণ্ডে গ্রেফতার হয়েছেন বলিউডের কিং খানের ছেলে আরিয়ান খান। বলিউড স্টারের সন্তান বলে আলাদা করে কোনো সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেননা তিনি, এমনটাই জানা গিয়েছে। এনসিবির হেফাজতে রেখে জেরা করা হচ্ছে তাকে। প্রথমে জেরায় কিছু স্বীকার করেননি শাহরুখপুত্র। পরের চাপের মুখে মুখ খোলেন আরিয়ান।

এদিন আরিয়ানের সাথে তার দুই সঙ্গী আরবাজ শেঠ মার্চেন্ট ও মুনমুন ধামেচারকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। ৭ই অক্টোবর পর্যন্ত নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর হেফাজতে থাকতে হবে তিনজনকেই, নির্দেশ মুম্বাইয়ের এসপ্ল্যানেড কোর্টের। জানা গেছে এনসিবির হেফাজতে জেরা চলাকালীন শাহরুখপুত্র আরিয়ান খানকে কাগজের থালা করে বিরিয়ানি ও স্থানীয় রেস্তোরাঁ থেকে লুচি তরকারি এনে দেওয়া হয়েছিল।

এখন এনসিবির মেসে তৈরি খাবার খেতে হচ্ছে শাহরুখপুত্র আরিয়ান খানকে। তারকা পুত্র হিসেবে আলাদা করে তার কোন খাতিরদারি নেই এনসিবির কাছে। এখনই বাড়ি থেকে খাবার আনার অনুমতি মেলেনি। অনেকেই ভেবেছিলেন সোমবার আরিয়ান ছাড়া পেয়ে যাবেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা হয়নি। এখনো আরো বেশ কয়েকদিন এনসিবি হেফাজতেই থাকতে হবে আরিয়ান খানকে।

শনিবার গভীর রাতে কর্ডেলিয়া নামের বিলাসবহুল ক্রুজ থেকে গ্রেপ্তার করা হয় আরিয়ান খান ও তার দুই সঙ্গীকে। এনসিবির জেরার মুখে প্রথমে কিছু স্বীকার না করলেও পরে তিনি স্বীকার করে নেন দুবাই ও লন্ডনে গিয়েও মাদক নিয়েছিলেন তিনি। এনসিবির আধিকারিকরা আরিয়ানের লেন্সের কৌটো থেকে মাদক বাজেয়াপ্ত করেছেন। এই ঘটনায় ধৃত মুনমুন ধামেচার, আরিয়ানের সঙ্গীর স্যানিটারি ন্যাপকিন এবং অন্তর্বাসের মধ্যে থেকেও প্রচুর পরিমাণ মাদক পেয়েছেন।

শাহরুখপুত্র আরিয়ান খানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৭, ৮সি-সহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। সোমবার আদালতে তোলার আগে আরিয়ান সহ তার দুই সঙ্গীর মেডিকেল টেস্টও করা হয়েছে। এই ঘটনার পর থেকে অনেকেই শাহরুখ খানের সমালোচনা করেছেন। অন্যদিকে আবার অনেকে পাশে দাঁড়িয়েছেন অভিনেতার।

জানা গেছে, আরিয়ানের গ্রেফতারের খবর পেয়ে সেদিন মধ্যরাতে কিং খানের মান্নাতে পৌঁছে গিয়েছিলেন বলিউডের ভাইজান। সেদিন শুটিংয়ের জন্য বিদেশে যাওয়ার কথা ছিল শাহরুখ খানের। তবে এই ঘটনা ঘটার পর সেই বিদেশ সফর বাতিল করেছেন অভিনেতা। ৭ তারিখ পর্যন্ত এনসিবির হেফাজতে থাকবে আরিয়ান। তারপর কি হতে চলেছে সেটা ভবিষ্যতই বলবে।

Back to top button