বলিউডStory

“৫০ বছরে আমি যে আয় করেছি, ২ বছরের মধ্যে আলিয়া সেই আয় করে এনেছেন,” মেয়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ পরিচালক মহেশ ভাট

বলিউডের জনপ্রিয় পরিচালক মহেশ ভাটের মেয়ে আলিয়া ভাট। তবে বর্তমানে আলিয়া নিজের পরিচয় তেই বলিউড নিজের স্থান করে নিয়েছেন। নিজের কাজের মাধ্যমে, নিজের অভিনয়ের মাধ্যমে পাকাপোক্তভাবে দর্শকের মনে জায়গা করে নিয়েছেন। ২০১২ সালে ‘স্টুডেন্ট অফ দি ইয়ার’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে ডেবিউ হয় আলিয়া ভাটের। তারপর থেকে একের পর এক হিট মুভি বলিউডকে দিয়ে গিয়েছেন আলিয়া। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে আলিয়া ভাটের বাবা মহেশ ভাট নিজের মেয়ের সাফল্য সম্পর্কে বিভিন্ন কথা জানিয়েছেন।

মহেশ ভাট জানিয়েছেন “ও বাবা মায়ের মত নয়, নিজেই একটি প্রতিভা। আমি একজন চলচ্চিত্র পরিচালক সবসময়ের কাজের মধ্যেই থাকতাম, বাড়িতে সবসময় ইন্ডাস্ট্রির কাজ নিয়ে কথা হতো, ওই সমস্ত কিছু দেখতে দেখতে আলিয়া শিখে গিয়েছে।” তিনি আরো বলেন “আলিয়ার কাজের মধ্যে বিশেষত্ব রয়েছে, ওর কাজের গভীরতা এবং সহানুভূতি রয়েছে। খুব অল্প বয়সেই ও সাফল্য অর্জন করেছে।

ইন্ডাস্ট্রিতে বহু তরুণ অভিনেতা অভিনেত্রীরা আসে যারা দীর্ঘ সময় চর্চার পরে সাফল্য অর্জন করে, কিন্তু আলিয়া খুব কম সময়ের মধ্যেই ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের পরিচয় গড়ে তুলেছে নিজের অভিনয়ের মাধ্যমে। দর্শকের মনে পৌঁছে গিয়েছে, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির আসার জন্য অনেক সাহসের প্রয়োজন হয় যেটা আলিয়া মধ্যে ছিল। যে আলিয়া ৫০০ টাকা রোজগারের জন্য বাড়ির ছোট ছোট কাজ করতে সাহায্য করত সে এখন নিজে আমার থেকে বেশি আয় করছে। ৫০ বছরে আমি যে আয় করেছি আলিয়া দু’বছরে সেই টাকা আয় করেছে।”

বলিউডের আরেক জন জনপ্রিয় পরিচালক করণ জোহারের হাত ধরেই বলিউডে আলিয়ার ডেবিউ হয়। এরপর থেকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে, বিভিন্ন ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। ১৯৯৯ সালে একবার শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয় করেছিলেন আলিয়া তারপরে বিভিন্ন ছবিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। ২০১৯ সালের ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডে সেরা অভিনেত্রীর পদক জিতে নিয়েছেন আলিয়া।

Back to top button