বাংলা সিরিয়াল

‘তুবড়ি চপ ভাজতে ভাজতেই পুলিশ অফিসার হয়ে গেল’! সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল ট্রোলড হলো ‘উড়ন তুবড়ির’ নিউ প্রোমো

জি বাংলার একটি জনপ্রিয় ধারাবাহিক উড়ন তুবড়ি। মা ও তিন মেয়ের গল্প নিয়ে শুরু হয়েছিল এই ধারাবাহিক। এই ধারাবাহিকে কেন্দ্রীয় চরিত্রের নাম তুবড়ি। যে অত্যন্ত স্পষ্টবাদী চরিত্রের একটি মেয়ে, অন্যায়ের সাথে সে কিছুতেই আপোষ করে না, বরং অন্যায়ের বিরুদ্ধে সে সব সময় গলা তোলে। তার চরিত্রের মধ্যে একটি ডানপিটে মারকুটে ব্যাপার আছে, যা প্রথম থেকেই ধারাবাহিকে দেখানো হয়েছিল। ধারাবাহিকে দেখানো হয়েছিল যে, একটি চপের দোকান আছে তাদের, সেই দোকানেই বসে তুবড়ি আর তার বোন। এরপর ভাগ্যচক্রে তার সাথে দেখা হয় অর্জুনের।

অর্জুনের সাথে ভালোবাসার একটি সম্পর্ক তৈরি হয় তুবড়ির, তবে মায়ের কারণে তুবড়ি অন্য একজনের সাথে বিয়েতে রাজি হয় আর বিয়ের রাতে জানা যায় তুবড়ির বর খুব খারাপ একজন ছেলে। তখন বিয়ের রাতে বর বদল হয়ে যায় ও অর্জুনের সাথে বিয়ে হয় তুবড়ির এরপর শ্বশুরবাড়ি এসে জাদরেল শাশুড়ির পাল্লায় পড়ে তুবড়ি। যে শাশুড়ি ছেলের কাছে ভালোমানুষ সেজে থাকে আর বউ এর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে।

সম্প্রতি এই ধারাবাহিকের একটি নতুন প্রোমো সামনে এসেছে। এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে, তুবড়ি পুলিশের পোশাকে রেডি হচ্ছে। তার শাশুড়ি তাকে বলছে, পুলিশের চাকরি করে আমাদের বংশের মান সম্মান ডুবিয়ে আবার আশীর্বাদ চাইতে এসেছো! অন্যদিকে তার স্বামী অর্জুন তার মাথায় পুলিশের টুপি পরিয়ে বলছে,“ জীবনের সব বাধা পেরিয়ে এগিয়ে যাও তুবড়ি।”- এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর দর্শকরা ভীষণ খুশি হয়ে গিয়েছেন। তারা এই পোশাকেই দেখতে চেয়েছিলেন অন্যায়ের প্রতিবাদকারী স্পষ্ট চরিত্রের অধিকারী তুবড়িকে। দর্শকরা আগ্রহ রাখছেন এবার তার শাশুড়ি মায়ের অন্যায়ের যোগ্য জবাব দিতে পারবে তুবড়ি। অন্যদিকে একদল মানুষ আবার এই ভিডিও দেখার পর বলতে শুরু করেছেন,“চপ ভাজতে ভাজতেই পুলিশ অফিসার হয়ে গেল তুবড়ি! বেশ মজার তো”, অনেকেই এই ভিডিওর ট্রোল করে বলেছেন যে, পড়াশোনা না করে ঘরের কুটকাচালিতে থেকেও তাহলে পুলিশ হওয়া যায় এত সহজে!

 

View this post on Instagram

 

A post shared by mithai prem (@mithailoves)

Back to top button