“দত্তক নেওয়ার বিষয়টি আইনত হওয়া উচিত” দাবি খরকুটোর গুনগুনের, না হলে শিশু পাচারের বিষয়টি দিন দিন বেড়েই চলবে

তৃণা সাহা হলেন সোশ্যাল মিডিয়ার সেনসেশন। স্টার জলসার খোকাবাবু সিরিয়াল থেকেই জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন তৃণা সাহা। বর্তমানে অভিনেত্রী তৃণা স্টার জলসার অন্যতম জনপ্রিয় মেগা সিরিয়াল খরকুটোতে অভিনয় করছেন নায়িকার চরিত্রে।

এই সিরিয়ালে তার চরিত্রের নাম গুনগুন। গুনগুন চরিত্রটি অভিনেত্রীকে জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছে দিয়েছে। নির্দ্বিধায় এটা বলা যায় যে ক্যামেরার সামনে তিনি খুবই সাবলীল। তবে রিল লাইফ আর রিয়েল লাইফ এক নয়। গুনগুনের থেকে বাস্তবের তৃণা অনেকটাই আলাদা।

সম্প্রতি অভিনেতা নীল ভট্টাচার্যের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন তৃণা সাহা। বিয়ের পর দুজনেরই দায়িত্ব বেড়েছে অনেকটা। সংসার এবং কাজ দুটো একসাথে সামলাচ্ছেন তারা।

বর্তমানে তারা দুজনেই কাজ নিয়ে ব্যস্ত। জি বাংলার কৃষ্ণকলি সিরিয়ালে অভিনেতা নীল ভট্টাচার্য নায়কের চরিত্রে এবং অভিনেত্রী তৃণা সাহা স্টার জলসায় খরকুটো সিরিয়ালের নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করছেন।

এতকিছুর মধ্যেও অভিনেত্রী তৃণা একটা বিষয়ে মানুষকে সচেতন করেছে এই করোনা পরিস্থিতিতে।

তৃণার কথায় বর্তমানে করোনার জন্য বহু ছোট ছোট শিশু অসময়ে হারাচ্ছে তাদের বাবা মাকে। সদ্য বাবা মাকে হারানোর পর ওই শিশুদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে তৃণা সাহা একটি পোস্ট করেছেন।

তার মতে ‘দত্তক নেওয়ার বিষয়টি আইনত হওয়া উচিত’। কারণ তা না হলে শিশু পাচারের বিষয়টি দিন দিন বেড়েই চলবে। অভিনেত্রী এও বলেন ‘ যদি আপনাকে জানতে পারেন আপনার আশপাশে কোনো শিশু সদ্য তার বাবা মাকে হারিয়েছে তাহলে তাকে নিজের কাছে রাখুন কিংবা পুলিশকে জানান।

আর তা না হলে চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটির সাথে যোগাযোগ করুন। চাইল্ড লাইন নম্বর ১০৯৮-এ ফোন আমরা সকলেই করতে পারি। এটি আমাদের সকলের আইনত দায়িত্ব’। এই পোস্টে তিনি একটি জাতীয় সংস্থার সাথে যোগাযোগ করার পদ্ধতিও জানিয়েছেন।

এই কঠিন পরিস্থিতিতে অসহায় বাচ্চাদের কথা মাথায় রেখেই অভিনেত্রী সকলকে এই বিষয়ে সচেতন করেছেন। শুভ্রদীপ্ত ঘরাই এই পুরো বিষয়টি ইউটিউব চ্যানেল থেকে পোস্ট করেছেন।