বাংলা সিরিয়াল

‘মিঠাই’ ধারাবাহিকের মিঠাই বাস্তব জীবনে ঠিক কিরকম! আসুন জেনে নেওয়া যাক অভিনেত্রীর আসল পরিচয়

বর্তমানে টেলিভিশনের পর্দায় যে সমস্ত জনপ্রিয় ধারাবাহিক গুলি টিআরপি লিস্টের প্রথম সারিতে রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম একটি ধারাবাহিক হল ‘মিঠাই’। ধারাবাহিক শুরুর প্রথম দিন থেকেই TRP লিস্টে একদম প্রথম স্থান অধিকার করে নিয়েছে এই ধারাবাহিক। নামের মতোই এই ধারাবাহিকও বেশ মিষ্টি।

ধারাবাহিকে দেখানো হচ্ছে একটি একান্নবর্তী পরিবারের গল্প, পরিবারের বড় বউ দুষ্টু মিষ্টি মেয়ে মিঠাই সিদ্ধার্থের মত একজন গোমড়ামুখো মানুষকে কিভাবে মিষ্টি স্বভাবের মানুষ তৈরি করে দিচ্ছে তাই এখন দেখা যাচ্ছে ধারাবাহিকে। মিঠাই এর প্রতিটি এপিসোডে নিত্যনতুন টুইস্ট লেগেই রয়েছে যার ফলে দর্শকেরা এই ধারাবাহিক বেশ পছন্দ করেন।

তবে মিঠাই এর ভূমিকায় আমরা যাকে দেখতে পাই বাস্তব জীবনে আসলে সে কিরকম আসুন তা জেনে নেওয়া যাক।
টিভির পর্দায় আমরা মিঠাই এর ভূমিকায় যাকে দেখতে পাই তিনি হলেন আমাদের সকলের প্রিয় সৌমিতৃষা কুন্ডু। সৌমিতৃষা এই দুষ্টু মিষ্টি চরিত্রকে বেশ সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলতে সফল হয়েছে। বিগত পাঁচ বছর ধরে টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রি সঙ্গে যুক্ত রয়েছে সৌমিতৃষা। সৌমিতৃষা তার অভিনয় জগতের শুরু ভিলেনের চরিত্র দিয়ে করেছিল।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by SOUMITRISHA (@soumitrishaofficial)

‘এ আমার গুরুদক্ষিণা’ নামক ধারাবাহিক এ সৌমিতৃষা কে নেগেটিভ চরিত্রে দেখতে পেয়েছিল দর্শকেরা। এরপর আরো বেশ কয়েকটি ধারাবাহিকে কাজ করে সৌমিতৃষা। অবশেষে কালার্স বাংলার একটি পরিচিত ধারাবাহিক ‘কনে বউ’ এর মুখ্য চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পান তিনি। তারপরেই জি বাংলা থেকে অফার আসে মিঠাই চরিত্রের জন্য।

এক সাক্ষাৎকারে সৌমিতৃষা জানিয়েছেন অভিনয়ের জন্য তাকে কখনোই অডিশন দিতে হয়নি। প্রথমে তিনি মডেলিং দিয়ে তার যাত্রা শুরু করেন, সেখান থেকে অভিনয়ের অফার আসে। বর্তমানে মিঠাই ধারাবাহিকের জন্য তাকে অনেক কিছু শিখতে হয়েছে মিষ্টি বানানোর কিছু কিছু পদ্ধতি রপ্ত করতে হয়েছে। বিশেষ করে এই ধারাবাহিক কাজ করতে গিয়ে তিনি মনোহরা বানাতে শিখে গিয়েছেন।

সেই গল্প সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছিলেন সৌমিতৃষা। বর্তমানে ধারাবাহিকে দেখা যাচ্ছে সিদ্ধার্থ এবং মিঠাইয়ের বৈবাহিক জীবন একেবারে সহজ পথে এগোচ্ছে না। সমস্ত রকম ভুল বোঝাবুঝি, মান-অভিমান কেটে গিয়ে কি করে দুজনের মধ্যে মিলন ঘটানো যায় পুরো মোদক পরিবার সেই প্রচেষ্টাতেই রয়েছে।

Back to top button