খৈনি পছন্দ নয়, সিগারেট খেলে গন্ধ ভালো লাগে! মনের কথা বললেন লতাকন্ঠী রানু মন্ডল

তার সুমধুর কন্ঠস্বর তাকে রাতারাতি রানাঘাট স্টেশন থেকে পৌঁছে দিয়েছিল মুম্বাইতে। রানাঘাটের রানু মন্ডল রাতারাতি হয়ে গিয়েছিল সিংগিং সেনসেশন। সেখানে হিমেশ রেশমিয়ার তত্ত্বাবধানে বেশ কয়েকটি গান গেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ভাগ্যের ফেরে এবং নিজের অহংকারী স্বভাবের জেরে তাকে ফিরে আসতে হয়েছিল রানাঘাটে।

কিন্তু, আবারও তিনি হিন্দি সিনেমায় গান গাইতে চলেছেন বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। আর সেই কারণেই ফের লাইম লাইটে আসতে চলেছে রানাঘাটের রানু মন্ডল। এবার ধীরাজ মিশ্রর সঙ্গে কাজ করতে চলেছেন তিনি। জানা গিয়েছে, ধীরাজ মিশ্রর প্রথম রোমান্টিক ছবি সীতামগর এবং দেশাত্মবোধক সিনেমা সরোজিনিতে গান গাইবেন রানু মন্ডল।

আর সেকথা ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে, সম্প্রতি ইউটিউবের একটি চ্যানেল কনফিউসড পিকচার থেকে রানু মন্ডলেরই একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে যে, সেই চ্যানেলটিরই দুই সদস্য আরব ও অরিজিৎ একের পর এক প্রশ্ন করছেন রানু মন্ডলকে। আর সেই প্রশ্নেরই উত্তর দিচ্ছেন রানু মন্ডল।

কখনও ঠিক থাক আবার কখনও ভুলভাল যুক্তি খাড়া করে উত্তর দিচ্ছেন সিঙ্গিন সেনসেশন রানু মন্ডল। আর সেই নিয়েই রীতিমতো এক হাস্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। রীতিমতো তারা রানু মাসির সঙ্গে কেওরামো করছে দেখা যাচ্ছে এই ভিডিওতে।

তবে, রানু দি ও কিন্তু কিছু কম যান না রীতিমতো হেসে যুক্তি দিয়ে তাঁদের একের পর পর অদ্ভুত প্রশ্নের উত্তর সামলাচ্ছেন। তবে, আদেও সে যুক্তি সঠিক অথবা গ্রহণযোগ্য কিনা সে ব্যাপারে রানু দির কোন মাথাব্যাথা নেই।

ওই ইউটিউব চ্যানেলের একটি সদস্য যখন তাকে জিজ্ঞাসা করেন যে, তিনি ভগবানের চাকর বলেছিলেন কেন? রানু মন্ডল তখন বলেন যে, ভগবানের চাকর হওয়া তো ভাগ্যের ব্যাপার। ভগবানের চাকর এবং আমারও চাকর।

এই বলে তিনি হেসে দেন। তারা আরও বলেন সালমান খানের দেওয়া ফ্ল্যাটে ভাড়া দিয়ে রানাঘাটে রয়েছেন রানু মণ্ডল। এর পরিপ্রেক্ষিতে রানু মণ্ডল বলেন, সালমান খানের পক্ষে তাকে একটি ফ্ল্যাট দেওয়া কোনো ব্যাপার না।

তবে, রানু মন্ডলের এসোসিয়েট মিঠুন বাবু বলেন যে, সালমান খানের রানু মন্ডলকে ফ্ল্যাট দেওয়ার ব্যাপারটা পুরোটাই মিথ্যে। যদি সত্যিই ফ্ল্যাট পেতেন তাহলে রানু মন্ডল এখনে থাকতেন না বলেই তাঁর বক্তব্য।

তাঁরা যদি আরও বলেন যে, সবাই বলে আপনার অহংকার খুব। তখন সে স্বপক্ষে যুক্তি দিয়ে বলেন যে, তোমাদের কি মনে হয় আমাকে দেখে? তিনি আরও বলেন যে, অনেকে এসে জড়িয়ে গায়ে এসে ছবি তুলতে চায় সেসবই পছন্দ নয় তাঁর।

তবে, মুম্বাই এবং রানাঘাটের মধ্যে তার রানাঘাটই যে, বেশি পছন্দ সেকথা তিনি স্পষ্ট করে বলেন। তাঁর সিগারেটের গন্ধ ভালো লাগে সেটাও জানান তিনি।

তবে, এই ভিডিওটা দেখে বোঝাই যাচ্ছে, রীতিমত রানু মন্ডলের সঙ্গে কেওরামো করা হয়েছে।