ভাইরাল

স্কুলে না পড়াশোনা করিয়ে ক্লাস রুমের মধ্যেই ‘তুম হি হো’ গানে ছাত্রের সঙ্গে উদ্দাম নাচলেন শিক্ষিকা, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

আজকের দিনে দাঁড়িয়ে বর্তমান প্রজন্মের কাছে বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম সোশ্যাল মিডিয়া। এখন আট থেকে আশি প্রায় সকলেই সোশ্যাল মিডিয়াতে নিজেদের অবসরের বেশিরভাগটা কাটাতে পছন্দ করেন। আর সোশ্যাল মিডিয়াও হতাশ করে না তার নেটিজেনদের। প্রতিদিন প্রতিমুহূর্তে নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে একাধিক ভিডিও ও ছবি। তবে কনটেন্ট ভালো হোক কিংবা খারাপ নেটিজেনদের আকর্ষণ করতে পারলেই তা ভাইরাল হয়। বলাই বাহুল্য, বর্তমান যুগে মোবাইল ফোন আর তার সাথে ইন্টারনেট গোটা বিশ্বকে এনে দিয়েছে আমাদের হাতের মুঠোয়। পাড়ার খবর হোক কিংবা দেশ-বিদেশের সবটাই আমরা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে খুব সহজেই মুঠোফোনে দেখে নিতে পারি।

স্কুলের শেষ দিনটা প্রতিটা মানুষের কাছেই স্মরনীয় হয়ে থেকে যায় আজীবন। স্কুলে কাটানো মুহূর্তগুলো যেকোনো মানুষের কাছে তাদের স্মৃতির খাতায় সোনালী মুহূর্ত হিসেবে থেকে যায়। নিশ্চিতভাবে বলা যায়, যারা যারা এই মুহূর্তে এই লেখাটি পড়ছেন একবার হলেও মনে মনে ভেবে নিয়েছেন স্কুলের শেষ দিনটার কথা। আমাদের সকলেরই স্কুলের শেষ দিনটার প্রতিটা মুহূর্ত মনে থেকে গেছে। আর সেটাই স্বাভাবিক। স্কুল থেকে বরাবরের মত চলে আসার আগে একটি বিদায়ী অনুষ্ঠান হয়ে থাকে। আর সেই বিদায়ী অনুষ্ঠানে এক ছাত্র যা ঘটালো, তা হয়তো আমরা কেউ কোনদিনও করার কথা ভাবিনি। সম্প্রতি সেই ভিডিওই নেটিজেনদের একাংশের মধ্যে ভাইরাল হয়েছে।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে স্কুলের বিদায়ী অনুষ্ঠানে নিজের প্রিয় শিক্ষিকার সাথে এক ছাত্র বলিউডের ব্লকবাস্টার হিট ছবি ‘আশিকি ২’এর জনপ্রিয় গান ‘তুম হি হো’তে রীতিমতো বল ডান্স করলেন। আর শেষদিনে ছাত্রদের মন রাখার জন্য শিক্ষিকাও সেই সময়টাকে উপভোগ করলেন। এই দৃশ্য দেখে ছাত্রটির বন্ধুরা সকলেই উচ্ছ্বসিত হয়ে উঠেছিলেন। তাদের মধ্যে কেউ একজন এই মুহূর্তের ভিডিও করে একটি ছোট ইউটিউব চ্যানেল থেকে তা শেয়ার করে দেন, যা এই মুহূর্তে নেটিজেনদের একাংশের মধ্যে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই বেশ কয়েকজন নেটনাগরিক এই ভিডিওর প্রেক্ষিতে নেতিবাচক মন্তব্য পোষণ করেছেন। তাদের কয়েকজনের মতে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের উচিৎ যেকোন পরিস্থিতিতে নিজেদের গাম্ভীর্য ছাত্র-ছাত্রীদের সামনে ধরে রাখা। আবার কারোর মতে, এই শিক্ষিকার এমন ঘটনা ঘটানো উচিৎ হয়নি। তবে যেসমস্ত ছাত্র-ছাত্রীরা এই ভিডিও দেখেছেন তাদের মনে যে এমন কান্ড ঘটানোর ইচ্ছা একবারও জাগেনি, তা কিন্তু নিশ্চিতভাবে বলা মুশকিল। তবে এই ভিডিওটি দেখে বেশ উপভোগ করেছেন নেটিজেনদের একাংশ, তা বলাই যায়।

Back to top button